উৎসাহ-উদ্দীপনায় অনুষ্ঠিত হলো এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ুথ সামিট

আপডেট: মার্চ ৩১, ২০১৭, ১২:৪৪ পূর্বাহ্ণ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি



তরুণ যুবাদের ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা, ইতিবাচক কাজে অংশ নেয়ার শপথ গ্রহণ, মুক্ত সংলাপ, সেমিনার, হার্ড টক, পজেটিভ ক্যাম্পেইন ও নাচ গানের মধ্যে দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে রাজশাহীতে শেষ হয়েছে এ্যাকটিভ সিটিজেনস রিজিওনাল এচিভারস সামিট।
রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ডা. কাইছার রহমান চৌধুরী অডিটোরিয়ামে ব্রিটিশ কাউন্সিলের এ্যাকটিভ সিটিজেন্স প্রকল্পের আওতায় এই সামিট আয়োজন করে সিসিডি বাংলাদেশ। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও নগর সভাপতি এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার ইতিবাচক পরিবর্তনের জন্য তরুণদের সামাজিক নেতৃত্ব গ্রহণ করতে হবে।
সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা ও সাবেক রাষ্ট্রদুত প্রফেসর এম. সাইদুর রহমান খান, রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান, ব্রিটিশ কাউন্সিলের প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর আব্দুর সবুর ও সিসিডির পরিচালক জি এম মুরতুজা প্রমুখ।
এর আগে হার্ড টকে অংশ নিয়ে রাজশাহী-৩ আসনের সাংসদ আয়েন উদ্দীন বলেন, স্থানীয় পর্যায়ের উন্নয়ন কর্মকা-কে বেগমান করার জন্য তরুণ যুবাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। তিনি তরুণদের সামাজিক উন্নয়নে অংশ নেয়ারও আহ্বান জানান।
এই হার্ড টকে বিশিষ্ট নারীনেত্রী শাহীন আকতার রেনী বলেন, সকল নেতিবাচক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে তরুণ যুবাদের প্রতিবাদ করতে হবে এবং প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। তবেই দেশ ইতিবাচক দিকে এগুবে এবং মুক্তচিন্তার পথ প্রশস্ত হবে।
হার্ড টকে অন্যদের বক্তব্য দেন, রাজশাহী বিশবিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহ আজম শান্তুনু, কবিকুঞ্জের সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট কবি আরিফুল হক কুমার এবং বিশিষ্ট নারীনেত্রী ও এসিডি’র নির্বাহী পরিচালক সালিমা সারোয়ার।
বৃহস্পতিবার সকালে এই সামিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার শফিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ওসমান গনি তালুকদার, রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ সাইফুর রহমান, ব্রিটিশ কাউন্সিলের প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর আব্দর সবুর, দি হাঙ্গার প্রজেক্টের এরিয়া কো-অর্ডিনেটর সুব্রত পাল, সিল ইন্টারন্যাশনাল-এর প্রজেক্ট কো-অর্ডিনটর শান্তা মারিয়া ডি কোস্টা, সিসিডি ও রেডিও পদ্মা’র যুগ্ম পরিচালক শাহানা পারভীন প্রমুখ।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তরা বলেন, তরুণ যুবাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সুখি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার অঙ্গিকার নিয়ে কাজ করে যেতে হবে। তবেই সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আসবে ও দেশ এগিয়ে যাবে সমৃদ্ধির দিকে।
অপর একটি হার্ডটকে যুবনেত্রী অর্ণা জামান, তরুণ চলচিত্র নির্মাতা তৌকির ইসলাম, তরুন সঙ্গীত প্রযোজক রফিক পাভেল এবং তরুন উদ্যোক্তা অনিমা চৌধুরী বলেন, তরুণরা সামাজিক নেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলে সকল সামাজিক বঞ্চনা প্রতিরোধ ও শান্তি প্রতিষ্ঠার পথ প্রশ্রস্ত হবে।
দিনব্যাপি এই সামিটে দু’টি সেমিনার, হার্ড টক, মুক্ত আলোচনা এবং মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দুই সহস্রাধিক তরুণ যুবা ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনার সাথে অংশগ্রহণ করে। এছাড়া এ্যাকটিভ সিটিজেনস প্রকল্পের আওতায় প্রশিক্ষিত তরুণদের নেতৃত্বে বাস্তবায়নাধীন ১৬ টি সোস্যাল অ্যাকশন প্রজেক্টের প্রদর্শনীতে দিনব্যাপী ছিল বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ ও দর্শকদের উপচেপড়া ভিড়।
সন্ধ্যায় সমাপনী অনুষ্ঠানে বেস্ট সোস্যাল এ্যাকশন প্রজেক্ট প্রদর্শনীতে বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান ছাড়াও বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান করেন, সাবেক সিটি মেয়র ও বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান, কমেডি শো, র‌্যাম্প, নাচ ও ওপেন কনর্সাট অনুষ্ঠিত হয়। কনসার্ট পরিবেশন করে রাজশাহীর জনপ্রিয় ব্যান্ড আরশি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ