‘একটা ফ্র্যাঞ্চাইজি বলতে পারে না মুশফিক খারাপ’

আপডেট: জুলাই ১৬, ২০১৭, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্ট মানেই বৈচিত্র্যপূর্ণ সংস্কৃতির মেলবন্ধন, বিশ্বের ক্রিকেট তারকাদের এক ছাদের নিচে আসা। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্ট মানে নানা নেতিবাচক খবরের উৎসও! বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগও (বিপিএল) এর ব্যতিক্রম নয়। বিপিএলের এক ফ্র্যাঞ্চাইজির স্বত্বাধিকারী যেমন বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন মুশফিকুর রহিমের অধিনায়কত্ব নিয়ে। প্রশ্ন তুলেছেন তাঁর দায়িত্ব ও শৃঙ্খলাবোধ নিয়েও।
ব্যাপারটা বেশ অবাক করার মতোই। ক্রিকেটের প্রতি মুশফিকের নিবেদন নিয়ে প্রশ্ন তোলার কোনো সুযোগ নেই। এমনকি গত ১২ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে তাঁকে ঘিরে চরম বিতর্ক হয়েছে, এমন উদাহরণও খুঁজে বের করা কঠিন। কিন্তু পরশু একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিসিবির অন্যতম পরিচালক ও বরিশাল বুলসের অন্যতম মালিক আবদুল আওয়াল বলেছেন, ‘ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে বাজে মন্তব্য করায় গত বছর মুশফিককে চিঠি দেওয়া হয়েছিল।…খেলোয়াড়েরা আশা করে তাদের সে উৎসাহ দেবে, একসঙ্গে বসে পরিকল্পনা করবে। সে ভালো খেলোয়াড় কিন্তু ভালো অধিনায়ক নয়। যেটি টি-টোয়েন্টিতে খুব দরকার।’
স্বাভাবিকভাবেই আবদুল আওয়ালের এই মন্তব্যে ক্ষুব্ধ হয়েছেন মুশফিক। বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক গতকাল বিষয়টি জানিয়েছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলকে। এ নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এতটাই আবেগাক্রান্ত হয়ে পড়েন, সংবাদ সম্মেলনই শেষ করতে পারেননি মুশফিক।
আবদুল আওয়াল শুধু একটি ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকই নন, বিসিবির একজন পরিচালকও। একজন দায়িত্বশীল কর্তার এই মন্তব্যে স্বাভাবিকভাবেই বিব্রত বিসিবি। তবে তাঁর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক, ‘সে পরিচালক হোক। কিন্তু জাতীয় দলের খেলোয়াড়কে যথাযথ সম্মান করতে হবে। একজন পরিচালক হিসেবে তাকে দায়িত্ব নিয়ে কথা বলতে হবে। তাঁকে ডেকে পাঠিয়েছি। এটার জন্য যদি ক্ষমা চাইতে হয়, ক্ষমা চাইবে। যেটা করা দরকার সেটা করতে হবে। বরিশাল বুলসের হয়ে মুশফিক খারাপ করতে পারে। কিন্তু একটা ফ্র্যাঞ্চাইজি বলতে পারে না, মুশফিক খারাপ! সে জাতীয় দলের অধিনয়ক।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ