একাত্তর নিয়ে যা বললেন পাকিস্তানের বিদায়ী সেনাপ্রধান

আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০২২, ৯:০৮ অপরাহ্ণ

পাকিস্তানের বিদায়ী সেনাপ্রধান জেনারেল জাভেদ কামার বাজওয়া। ছবি: ডন

সোনার দেশ ডেস্ক:


পাকিস্তানের বিদায়ী সেনাপ্রধান জেনারেল জাভেদ কামার বাজওয়া তার মেয়াদের শেষ প্রকাশ্য ভাষণে কথা বলেছেন ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর পরাজয় নিয়ে। তিনি বলেছেন, সাবেক পূর্ব পাকিস্তান ছিল একটি রাজনৈতিক ব্যর্থতা, সামরিক নয়। বুধবার রাওয়ালপিন্ডিতে সেনা সদর দফতরে এক বার্ষিক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বেশিরভাগ মানুষ ১৯৭১ সালে পূর্ব পাকিস্তানে সেনাবাহিনীর কর্মকা- ও পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা এড়িয়ে যেতে চায় বলে উল্লেখ করেছেন জাভেদ বাজওয়া।

তিনি বলেন, আমি কিছু তথ্য সংশোধন করতে চাই। প্রথমত, সাবেক পূর্ব পাকিস্তান সামরিক ব্যর্থতা ছিল না, এটি ছিল একটি রাজনৈতিক ব্যর্থতা।

জেনারেল জাভেদ বাজওয়া বলেছেন, ওই সময় যুদ্ধে পাকিস্তানের সেনাদের সংখ্যা ৯২ হাজার ছিল না, এই সংখ্যা ছিল মাত্র ৩৪ হাজার। বাকিরা ছিলেন সরকারের বিভিন্ন দফতরের কর্মী। ভারতীয় সেনাবাহিনীর আড়াই লাখ সেনা ও মুক্তি বাহিনীর ২ লাখ সদস্যের বিরুদ্ধে এই ৩৪ হাজার লড়াই করে।

তার দাবি, এই বিপুল প্রতিকূলতার মুখেও আমাদের সেনাবাহিনী সাহসিকতার সঙ্গে লড়াই করেছে এবং আত্মত্যাগের উদহারণ সৃষ্টি করেছে। যা ভারতের সেনাপ্রধান ফিল্ড মার্শাল মানেকশ’ স্বীকার করেছেন।

তিনি বলেছেন, দেশ এই আত্মত্যাগের মূল্য এখনও দেয়নি, যা বড় ধরনের অবিচার। এই অনুষ্ঠানের সুযোগ নিয়ে আমি সেই শহীদদের অভিবাদন জানাতে চাই এবং তা করে যাব। তারা আমাদের বীর এবং দেশের উচিত তাদেরকে নিয়ে গর্বিত হওয়া।

ছয় বছর সেনাপ্রধানের দায়িত্ব পালনের পর আগামী ২৯ নভেম্বর দায়িত্ব ছাড়বেন জেনারেল জাভেদ বাজওয়া। ২০১৬ সালে তিন বছরের জন্য তাকে সেনাপ্রধানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। পরে তার দায়িত্বের মেয়াদ আরও তিন বছর বাড়ানো হয়।

বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, নতুন সেনাপ্রধান হিসেবে লে. জেনারেল আসিম মুনিরের নাম প্রস্তাব করেছেন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। প্রেসিডেন্টের কাছে তার নাম অনুমোদনের পাঠানো হয়েছে।
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ