একের বদলে চার! কিমকে ‘জবাব’ দিতে পালটা ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়ল দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকা

আপডেট: অক্টোবর ৫, ২০২২, ১২:৫১ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


জাতিসংঘ ও আমেরিকাকে কার্যত চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে জাপানে ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়েছিল উত্তর কোরিয়া। এবার তাদের ‘জবাব’ দিতে পালটা ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়ল দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকা। বুধবার জাপান সাগরে চার-চারটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করল দুই দেশ।

জানা গিয়েছে, ‘আর্মি ট্যাক্টিক্যাল মিসাইল সিস্টেম’ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়েছে। দুই দেশের তরফে দু’টি করে ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়ে এভাবেই কিমের দেশকে প্রত্যুত্তর দেওয়া হল। স্বাভাবিক ভাবেই এই পালটা শক্তি প্রদর্শনের ফলে ওই অঞ্চলে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এবার কিমও ফের পালটা দিতে নতুন করে ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়েন কিনা সেদিকেই নজর ওয়াকিবহাল মহলের।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সকাল আটটা নাগাদ জাপানে ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়ে উত্তর কোরিয়া। সঙ্গে সঙ্গে হোক্কাইডোর বাসিন্দাদের বাড়ি খালি করে দেওয়ার নির্দেশ দেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা। পরে জানা যায়, উত্তর-পূর্ব জাপান পেরিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে গিয়ে পড়েছে ক্ষেপণাস্ত্রটি। দক্ষিণ কোরিয়ার দাবি, উত্তর কোরিয়া যেটি ছুঁড়েছে সেটি মাঝারি পাল্লার ব্যালিস্টিক মিসাইল।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের পর এই প্রথম জাপানে ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়ল উত্তর কোরিয়া। ঘটনায় দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও আমেরিকা তীব্র সমালোচনাও করেছিল। এরপর একদিনের মধ্যেই পালটা শক্তি প্রদর্শন করল দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকা। ফলে উত্তেজনা আরও বাড়ল।
প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহেও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করতে দেখা গিয়েছিল কিমের দেশকে। দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকা বহুদিন ধরেই দাবি করছে, গোপনে পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষার প্রস্তুতিও নিচ্ছেন কিম। এর আগে ২০০৬ সালে তারা প্রথম বার পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষামূলক নিক্ষেপ করেছিল।

পরবর্তী ১১ বছরে ৬ বার তারা এমন পরীক্ষা করলেও ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরের পর আর এই ধরনের কোনও পরীক্ষা করেনি। কিন্তু এবার ফের পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষা করতে উদ্যত উত্তর কোরিয়া। আসলে কিমের দেশ পারমাণবিক শক্তিধর দেশ হিসেবে স্বীকৃতি চায় আমেরিকার থেকে।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন