এডিবি ও ইউনিসেফ প্রতিনিধিদের সঙ্গে রাসিক মেয়রের মতবিনিময়

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৪, ১০:৫০ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রাজশাহীতে থার্ড সিটি রিজিয়ন ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট বিষয়ক পরামর্শ সভা বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নগর ভবনের সিটি হল সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, সিআরডিপি-২ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মোঃ হামিদুল হক, প্রজেক্ট টিম লিডার এসজিডব্লিউইউডি এর সিনিয়র প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট স্পেশালিস্ট পুষ্কর শ্রীবাস্তব। সভায় সিআরডিপি-৩ প্রকল্পে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ অন্তর্ভূক্তির বিষয়ে আলোচনা করা হয়। সিআরডিপি-৩ প্রকল্পের মাধ্যমে রাজশাহী মহানগরীর উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নের কথা জানান প্রকল্প পরিচালক ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) এর প্রতিনিধিবৃন্দ।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, আজকের দিনটি সত্যিই আনন্দের। প্রান্তিক জনগোষ্ঠী জীবনমান উন্নয়নে সহায়তা করছে এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংক। ইতোমধ্যে রাজশাহী মহানগরীর উন্নয়নে সরকারের কাছ থেকে সহযোগিতা পেয়েছি। যা দিয়ে রাজশাহী মহানগরীকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অন্যান্য সিটি মেয়রদের রাজশাহী দেখে আসার জন্য বলেছেন। সকলের সহযোগিতায় রাজশাহীকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে চাই।

রাসিক মেয়র বলেন, সিআরডিপি-৩ প্রকল্পে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ অন্তর্ভূক্তির জন্য আমরা প্রস্তাবনা দিয়েছেন। এরমধ্যে তিনটি খালের মাস্টারপ্ল্যান প্রণয়ন ও উন্নয়ন কাজ রয়েছে। খাল উন্নয়ন সহ বিভিন্ন কাজ জনগণের কল্যানে কাজে লাগবে। যতটুকু পারি আমরা তাদের কাছ থেকে সহযোগিতা নিব। মি. পুষ্কর শ্রীবাস্তব আমাকে বলেছেন, প্রকল্পে যে পরিমাণ অর্থায়নের তারা ভাবছেন, সেটি আমাদের গ্রহণযোগ্যতা, কাজের দক্ষতা ও জনগণের সুফলপ্রাপ্তি সাপেক্ষে বাড়তে পারে।

সিআরডিপি-২ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. হামিদুল হক বলেন, মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন রাজশাহী মহানগরীর ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। তিনি শুধু স্বপ্ন দেখেন না, স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেন। রাজশাহীকে বদলে দিয়েছেন তিনি। এই বছরের মধ্যেই এডিবির এ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে। বদলে যাওয়া রাজশাহী মহানগরীর উন্নয়নে সর্বাত্মক সহযোগিতা করতে চাই।

সভায় সভাপতিত্ব করেন রাসিকের সচিব মো. মোবারক হোসেন। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন রাসিকের প্রধান প্রকৌশলী নুর ইসলাম তুষার। সভা মঞ্চে উপবিস্ট ছিলেন রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযীম, প্রকল্পের ক্লাইমেট চেঞ্জ স্পেশালিস্ট মিস অকজু জিওন, এ্যসোসিয়েট প্রজেক্ট এনালিস্ট মিস মারিয়া এ্যাঞ্জেলা মালিহা। অনুষ্ঠানে রাসিকের উন্নয়ন কর্মকান্ডের সার্বিক তথ্য উপস্থাপন করেন প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মোঃ মামুন এবং সহকারী প্রকৌশলী অনন্য ইসলাম নির্ঝর।

সভায় অতিথিবৃন্দকে ফুলেল শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান করেন রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। অনুষ্ঠানে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর, প্রকৌশলী ও কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এরআগে সকালে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক বাস্তবায়িত ও বাস্তবায়নাধীন এবং ভবিষ্যৎ উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের সাইট সমূহ পরিদর্শন করেন এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) এর প্রতিনিধিবৃন্দ।

এদিকে, ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধিবৃন্দদের সঙ্গে বিকেলে নগর ভবনে মেয়র দপ্তর কক্ষে এই সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিনিধি দলে ছিলেন ইউনিসেফ বাংলাদেশের ডেপুটি রিপ্রেজেন্টিটিভ (প্রোগ্রাম) এমা ব্রিঘাম, ডেপুটি রিপ্রেজেন্টিটিভ (অপারেশন) ফারুক আদ্রিয়ান ডুমুন, ওআইসি ফিল্ড সার্ভিস লরেন্স ওডুমা, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের চিফ তৌফিক আহমেদ। সভায় ইউনিসেফ এর প্রতিনিধিবৃন্দকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ও শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান করেন রাসিক মেয়র।

সভায় ইউনিসেফ প্রতিনিধি দলটি রাজশাহীতে অফিস চালু এবং ইউনিসেফের চলমান কার্যক্রম বিস্তৃত করার বিষয়ে রাসিক মেয়রের সহযোগিতা কামনা করে। এ সময় রাসিক মেয়র ইউনিসেফ বাংলাদেশকে সার্বিক সহযোগিতার আশ^াস প্রদান করেন এবং রাজশাহী নগরীতে শিশুদের কল্যাণে আরো বৃহৎ পরিসরে কাজ করার আহ্বান জানান। নগরীর ২নং ওয়ার্ডের আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকায় ইউনিসেফ কর্তৃক স্থাপিত সুয়ারেজ ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট প্রকল্প পুরো আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকায় বিস্তৃতি করার পরিকল্পনার কথা জানান ইউনিসেফ এর প্রতিনিধিবৃন্দ।

এ সময় রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ ও ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযীম, প্যানেল মেয়র-২ ও ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মমিন, ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আশরাফুল ইসলাম, ৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জানে আলম, ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাসেল জামান, ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বেলাল আহম্মেদ, ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ২৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলিফ আল মাহামুদ লুকেন, ২৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আশরাফুল হাসান (বাচ্চু),

৩০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আলাউদ্দিন, সচিব মো. মোবারক হোসেন, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আবু সালেহ মোঃ নুর-ঈ-সাঈদ, বাজেট কাম হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম খান, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ এফএএম আঞ্জুমান আরা বেগম, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মো. মামুন ডলার, উপ-প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা সেলিম রেজা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ