এনসিএলে ‘এলোমেলো বোলিং’ কাটিয়ে ওঠার লক্ষ্য মিরাজের

আপডেট: অক্টোবর ১০, ২০১৯, ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হ্যামিল্টন টেস্টে একমাত্র ইনিংসে করেছিলেন রান দেওয়ার ডাবল সেঞ্চুরি। চট্টগ্রামে আফগানিস্তানের বিপক্ষেও ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে। সবশেষ দুই টেস্টে নিজের এলোমেলো বোলিং নিয়ে দুর্ভাবনায় আছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ছন্দ ফিরে পেতে তরুণ এই অফ স্পিনার মনোযোগ দিচ্ছেন এনসিএলে।
বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে আনঅফিসিয়াল টেস্টে খেলতে মিরাজকে শ্রীলঙ্কায় পাঠিয়েছিলেন নির্বাচকরা। খারাপ করেননি সেখানে। প্রথম ম্যাচে একমাত্র ইনিংসে ১৫০ রানে নেন ৫ উইকেট। পরের ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ৮৪ রানে ৭ উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে ১১৮ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূন্য।
দেশে ফিরে এনসিএলে খেলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন মিরাজ। ঢাকা ছাড়ার আগে জানালেন, লাল বলের ক্রিকেটে যে আরও মনোযোগ দিতে হবে, বুঝতে পেরেছেন তিনি। সেটা মাথায় রেখেই খেলবেন খুলনার হয়ে।
“আমার মনে হয়, লাল বলে মনোযোগ বেশি দিতে হবে। কারণ, সামনে আমাদের অনেক টেস্ট ম্যাচ আছে। আর আমিও গত কয়েকটি টেস্ট ম্যাচে ভালোভাবে বোলিং করতে পারছিলাম না, এলোমেলো হচ্ছিল।”
“সামনে টেস্ট ম্যাচ আছে। সেখানে যেন ভালোভাবে ফিরে আসতে পারি সেজন্য হয়তো (‘এ’ দলে) আমাকে চিন্তা করেছেন। আমি নিজেকে আরও পরিণত করতে চাচ্ছি সামনে ভালো কিছু করার জন্য।”
শ্রীলঙ্কায় দুটি চার দিনের ম্যাচে খেলে ভারত সফরে ভালো করার আত্মবিশ্বাস পেয়েছেন মিরাজ। এনসিএলে ভালো করে পূর্ণ করতে চান ভারত খেলার প্রস্তুতি।
“শ্রীলঙ্কায় খেলে আমার জন্য ভালো হয়েছে। আমি অনেকক্ষণ বোলিং করার সময় পেয়েছি। অনেক দিন পর দেশের বাইরে এভাবে বোলিং করার সুযোগ পেয়েছি। বিশ্বকাপের আগে ও পরে সাদা বলেই খেলা বেশি হয়েছে।”
“শ্রীলঙ্কাতে আমার বোলিং খুব ভালো হয়েছে। যেখানে যেভাবে বোলিং করা উচিত ছিলো, এই দুই ম্যাচে সেভাবে বোলিং করতে পেরেছি। শ্রীলঙ্কা সিরিজে টেস্ট দলের অনেক ক্রিকেটার ছিলো। আমার কাছে মনে হয় এই দুটি ম্যাচ পরবর্তী ভারত সিরিজে আমাদের অনেক সাহায্য করবে।”
বৃহস্পতিবার শুরু হবে এনসিএলের ২১তম আসর। আগামী মাসে ভারতে দুটি টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলবে বাংলাদেশ।