এনার নেতৃত্বেই ভারত পেয়েছে ‘অগ্নি ৫’-এর মতো মারণাস্ত্র

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭, ১২:১১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে একের পর মাইলস্টোন ছুঁয়ে চলেছে ভারত৷ অগ্নি ৪ থেকে অগ্নি ৫-এর স্তরে উন্নিত হয়েছে দেশ৷ পারমাণবিক ক্ষমতা সম্পন্ন এই অস্ত্রের পাল্লা ৫০০০ কিলোমিটার পর্যন্ত৷ প্রয়োজন হলে পাকিস্তান কেন, দেশে থেকেই চিনের সীমানাতেও আক্রমণ শাণাতে পারে ভারতীয় সেনা৷ আর শত্রু নিধনের এই মারণাস্ত্র তৈরির নেপথ্যে রয়েছেন একজন মহিলা৷ ‘মিসাইল ওম্যান অফ ইন্ডিয়া’, টেসি থমাস৷ ডিআরডিও-র এমন নির্ভরযোগ্য মস্তিষ্ক৷ যা সফলভাবে নেতৃত্ব দিয়েছে অগ্নি ৪ ও অগ্নি ৫-এর মতো পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রকে৷
কেরলের এক ছোট্ট গ্রামে জন্ম টেসির৷ মাদার টেরেসার নাম থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে তাঁর নাম রাখেন বাবা-মা৷ তবে মেয়ের চোখে ছিল অন্য স্বপ্ন৷ দিনরাত বসে থাকত জানলার দিকে তাকিয়ে৷ একমনে দেখত বাড়ির সামনের রকেট লঞ্চিং স্টেশনের উড়ান৷ আকাশে ওড়ার সেই স্বপ্নই টেসিকে নিয়ে আসে পুনের ইনস্টিটিউট অফ আর্মামেন্ট টেকনোলজিতে৷ সেখান থেকেই এম.টেক করেন টেসি৷
পড়াশোনা শেষ করেই যোগ দেন প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থায় (উজউঙ)৷ এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাননি টেসি৷ নিজের নেতৃত্বে সযতেœ গড়ে তুলেছেন একের পর এক মারণাস্ত্র৷ পেয়েছেন জাতীয় স্বীকৃতি৷ সংবাদমাধ্যম তাঁকে নাম দিয়েছে ‘অগ্নিপুত্রী’৷ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিংয়ের কথায়, পুরুষশাসিত দুর্গে নিজের আলাদা অস্তিত্ব তৈরি করে উদাহরণ হয়ে উঠেছেন মিসেস থমাস আর দৃঢ়তার সঙ্গে কাঁচের দেওয়ালটা ভেঙে দিচ্ছেন তিনি৷- সংবাদ প্রতিদিন