এবার টিকটকে মার্কিন সেনাবাহিনীর নিষেধাজ্ঞা

আপডেট: জানুয়ারি ২, ২০২০, ১:২৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


নিরাপত্তার কারণে মার্কিন নৌবাহিনীর পর এবার সরকারের ইসু করা ফোনে টিকটক ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী।
চিনের বেইজিংভিত্তিক বাইটড্যান্সের তৈরি অ্যাপটি জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি হতে পারে বা এর মাধ্যমে মার্কিন নাগরিকদেরকে প্রভাবিত করা বা নজরদারি করা হতে পারে বলে দাবি করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র– খবর প্রযুক্তি সাইট ভার্জের।
মার্কিন সেনাবাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল রবইন ওচোয়া বলেন, “এটিকে সাইবার হুমকি হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।”
নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার আগে সদস্য নিয়োগের জন্য টিকটক ব্যবহার করেছে মার্কিন সেনাবাহিনী। ডিসেম্বর মাসের শুরুতেই টিকটকে বিপদ সংকেত দিয়েছে মার্কিন নৌবাহিনী এবং প্রতিরক্ষা বিভাগ।
এর আগে মার্কিন নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে সদস্যদেরকে সরকারের ইসু করা ফোনে টিকটিক ইনস্টল করতে নিষেধ করা হয়। আর যারা ইতোমধ্যেই অ্যাপটি ইনস্টল করেছেন তাদের ফোন থেকে এটি মুছে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়।
অক্টোবরে অ্যাপটি নিয়ে তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন আইনপ্রণেতারা। অ্যাপটির মাধ্যমে চীনা সরকার গ্রাহকের তথ্য সংগ্রহ বা শেয়ার করা ডেটা নিয়ন্ত্রণ করছে কিনা সেটিই খতিয়ে দেখতে বলা হয়। এরপরই অ্যাপটি নিয়ে সমালোচনা শুরু করে ‘কমিটি অন ফরেন ইনভেস্টমেন্ট ইন দ্য ইউনাইটেড স্টেটস (সিএফআইইউএস)’।
সিনেটর টম কটন এবং সিনেটর চাক শুমার এমন দাবিও করেছেন যে অ্যাপটি নির্বাচনে প্রভাব ফেলা এবং হংকংয়ের বিক্ষোভকারীদের চুপ করাতে ব্যবহার করা হয়েছে।
অক্টোবরে টিকটকের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, তারা চীনা সরকারের নির্দেশে গ্রাহকের ডেটা মুছে ফেলে না, আর ভবিষ্যতেও এমনটা করা হবে না।
প্রতিষ্ঠানটি আরও জানায় মার্কিন গ্রাহকের ডেটা যুক্তরাষ্ট্রেই মজুদ করা হয়। আর সিঙ্গাপুরে ব্যাকআপ রাখা হয়। তাই এটি চীনা আইনের আওতায় পড়ে না।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ