এবার মিশন দক্ষিণ আফ্রিকা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৭, ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাংলাদেশের ব্যস্ত ক্রিকেট মৌসুমের শুরু হয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ দিয়ে। বসে থাকার আর সময় নেই। অসিদের বিপক্ষে দুই ম্যাচের সিরিজ শেষে কিছুদিনের বিশ্রাম নেবেন মুশফিক-সাকিবরা। সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝিতেই তাদের ছাড়তে হবে দেশ। এবার মিশন দক্ষিণ আফ্রিকা।
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঢাকা টেস্ট জয়ের পর চট্টগ্রামে সিরিজ জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ৭ উইকেটের হারে সেটা হয়নি। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর সামনে রেখে বিশ্রামের জন্য বৃহস্পতিবারের ম্যাচ শেষ হওয়ার পরপরই ক্রিকেটাররা ঢাকায় ফিরে গেছেন। কয়েক দিনের ছুটি কাটিয়ে আবারও অনুশীলনে ফিরবেন তারা।
অনুশীলন শেষ হওয়ার পরপর ১৭ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকার বিমানে চাপবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এ সফরে দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি খেলবে তারা। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর টেস্ট দিয়ে শুরু হবে এ পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। দক্ষিণ আফ্রিকায় সর্বশেষ বাংলাদেশ গিয়েছিল ২০০৮ সালে। ৯ বছর আগের ওই দুই টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে হেরেছিল তারা। অবশ্য দুই দেশের সর্বশেষ দ্বিপাক্ষিক টেস্ট হয়েছিল ২০১৫ সালে। চট্টগ্রাম ও ঢাকার দুটি ম্যাচই বৃষ্টিতে ভেসে যায়, ফল থাকে অমীমাংসিত।
এবার প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ভালো ফল নিয়ে দেশে ফিরতে চায় বাংলাদেশ। টেস্ট ক্রিকেটে গত কিছুদিন ধরে নিজেদের সাফল্যটা সেখানে ধরে রাখতে চান মুশফিক, ‘সামনে আমাদের বেশ কিছু খেলা আছে। আমরা দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলতে যাবো। এরপর শ্রীলঙ্কা আমাদের এখানে আসবে। আশা করি সামনের সিরিজগুলোতে আমরা আমাদের সাফল্য বজায় রাখতে পারব।’
এই সিরিজের প্রথম টেস্ট হবে পচেফ্স্ট্রুম মাঠে। ৬ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় টেস্ট ব্লুমফন্টেইনে। এই দুটি মাঠেই ২৬ ও ২৯ অক্টোবর হবে টি-টোয়েন্টির দুই ম্যাচ। ১৫, ১৮ ও ২২ অক্টোবর তিন ওয়ানডে সিরিজের ভেন্যু কিম্বার্লি, পার্ল ও ইস্ট লন্ডনে।
২১ সেপ্টেম্বর বোনোনিতে দক্ষিণ আফ্রিকা আমন্ত্রিত একাদশের বিপক্ষে তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে সফর শুরু করবে বাংলাদেশ। এছাড়া ওয়ানডের প্রস্তুতি হিসেবে ১২ অক্টোবর একটি ঘাম ঝরানো ম্যাচ খেলবে মাশরাফিরা।-বাংলা ট্রিবিউন