এবার যুবাদের ভুটান চ্যালেঞ্জ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৭, ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


এক বছর আগে ভুটানের মাটিতে বিসর্জিত হয়েছিল বাংলাদেশ ফুটবলের সব মান-সম্মান। এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের প্লে-অফের ফিরতি ম্যাচে স্বাগতিকদের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। সেটিই ভুটানের কাছে ফুটবলে বাংলাদেশের প্রথম পরাজয়।
বছর ঘুরতে না ঘুরতে সেই ভুটানেই আবার বাংলাদেশ। তবে জাতীয় নয়, এবার অনূর্ধ্ব-১৮ দল। থিম্পুতে ১৮ সেপ্টেম্বর শুরু হবে সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপ। বাংলাদেশ ও ভুটান ছাড়াও দক্ষিণ এশিয়ার এ টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে ভারত, মালদ্বীপ ও নেপাল। তালিকায় শ্রীলংকা থাকলেও কয়েকদিন আগে নাম প্রত্যাহার করে নেয় তারা। ৫ দেশের টুর্নামেন্ট ফরম্যাট বদলে গ্রুপের পরিবর্তে এখন রাউন্ড রবীন লিগ পদ্ধতিতে।
টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচেই মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-ভারত। ২০১৫ সালে নেপালে অনুষ্ঠিত প্রথম আসরে (তখন ছিল অনূর্ধ্ব-১৯) এ দুই দলের দেখা হয়েছিল সেমিফাইনালে। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ম্যাচটি শেষ হয়েছিল গোলশূণ্যভাবে। টাইব্রেকারের ভারতের কাছে ৪-৩ গোলে হেরে শূণ্যহাতে ঘরে ফিরেছিল লাল-সবুজ জার্সিধারী যুবারা। গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ভুটানকে হারিয়েছিল ২-০ গোলে, নেপালের কাছে হেরেছিল ২-১ গোলে। এবার কী করবে বাংলাদেশ।
শনিবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টায় যুব ফুটবল দল ভুটানের থিম্পু পৌঁছেছে। যাওয়ার আগে দলের কোচ-খেলোয়াড়রা এ টুর্নামেন্ট নিয়ে তেমন আশার বাণী শোনাননি। ভালো খেলতে চাই-এর বাইরে আর কোনো প্রতিশ্রুতি দিয়ে যানটি দলের স্থানীয় কোচ মাহবুবব হোসেন রক্সি। টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের অবস্থান যাই হোক-এ সফরে বাংলাদেশের বড় চ্যালেঞ্জটা ভুটান। ভুটানের মাটিতে তাদের হারানো কঠিন। তারা এখন আগের ভুটান নেই। গত অক্টোবরে থিম্পুতে বাংলাদেশকে প্রথমবারের মতো হারিয়ে সেটা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে ভুটানিরা।
তবে বয়স ভিত্তিক টুর্নামেন্ট বলে আশাটা বেশি বাংলাদেশের। আর এ আশাটা বাড়িয়ে দিয়েছে অনূর্ধ্ব-১৫ দল। গত মাসে নেপালে অনুষ্ঠিত সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপে ভুটানকে ২ বার হারিয়েছে কিশোর দল। গ্রুপ পর্বের জয়টি ছিল ৩-০ গোলে, তৃতীয় স্থান নির্ধারনী ম্যাচে ৮-০।
কিশোর ফুটবলারদের ওই জয় দুটিকে অনেকে দেখছেন জাতীয় দলের দায়মুক্তি হিসেবে। কারণ গত অক্টোবরে থিম্পুতে এমিলি-মামুনুলদের লজ্জার হারের পর দেশের ফুটবলের উপর দিয়ে বয়ে যায় বড় একটা ঝড়। যে ঝড় দেশের ফুটবলের ভিতটাই নাড়িয়ে দিয়েছে। কিশোরদের পিঠাপিঠি জয়ে সে ক্ষদে খানিকটা প্রলেপ পড়লেও দুই দেশের জাতীয় দল মুখোমুখি না হওয়া পর্যন্ত হিসেবটা তোলাই থাকছে বাংলাদেশের।
বাফুফে এবার তাকিয়ে যুব ফুটবলারদের দিকে। অনূর্ধ্ব-১৮ দল শেষ ম্যাচে খেলবে ভুটানের বিরুদ্ধে। আগের ম্যাচগুলোর চেয়ে শেষ ম্যাচেই যেন বেশি মর্যাদার বাংলাদেশের জন্য। প্রতিপক্ষ ভুটান বলেই কথা। দেখা যাক যুব দল সেই চ্যালেঞ্জ জিতে ফিরতে পারে কি না?