এবার শিক্ষকদের ধর্মঘটে অচল রুয়েট

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৭, ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক



৩৩ ক্রেডিট পদ্ধতি বাতিলের দাবিতে শিক্ষার্থীদের অব্যাহত আন্দোলনের ফলে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) সৃষ্ট অচলাবস্থা নতুন মোড় নিয়েছে। শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেবার পর এবার শিক্ষকদের ক্লাশ-পরীক্ষা বর্জনে ফের অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে। শিক্ষকদের ধর্মঘটের কারণে গতকাল সোমবার রুয়েটে কোন ক্লাশ অনুুষ্ঠিত হয়নি।
আন্দোলনরত শিক্ষকদের অভিযোগ, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় শিক্ষকদের জিম্মি করা, ফেসবুকে শিক্ষকদের নিয়ে অশালীন মন্তব্য করা, আন্দোলনের সময় শিক্ষকদের হেনস্তা করাসহ বিভিন্ন মানহানিকর কাজ করেছে শিক্ষার্থীরা। যা একজন শিক্ষকের জন্য চরম লজ্জার। এসব কাজে উস্কানিদাতা ও জড়িতদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা না নেয়া পর্যন্ত আন্দোলন করবে শিক্ষকরা।
গতকাল সোমবার কর্মসূচি চলাকালে রুয়েট শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক নীরেন্দ্রনাথ মুস্তাফী সাংবাদিকদের বলেন, ‘শিক্ষকদের জিম্মি করে দাবি আদায়ে উস্কানিদাতা এবং শিক্ষকদের নিয়ে ফেসবুকে অশালীন মন্তব্যকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।’ শিক্ষার্থীরা এ বিষয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করেছে জানালে নীরেন্দ্রনাথ মুস্তাফী বলেন, ‘যখন শিক্ষার্থীরা ক্ষমা চেয়েছে তখন কোন শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন না। আর সেটা ক্ষমা চাওয়ার উপযুক্ত মঞ্চও নয়। তাই আমরা এ বিষয়ে একটা সুরাহা দাবি করেছি।’
গতকাল দুপুরে শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর তাদের দাবির বিষয়ে একটি স্মারকলিপিও প্রদান করেন।
এ বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক রফিকুল আলম বেগ বলেন, ‘শিক্ষকদের দাবি সংবলিত একটি স্মারকলিপি পেয়েছি। এ বিষয়ে মঙ্গলবার মিটিঙের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
উল্লেখ্য, এর আগে গত ২৮ জানুয়ারি থেকে ক্লাস বর্জন করে ৩৩ ক্রেডিট বাতিলের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে ১৪ ও ১৫ সিরিজের শিক্ষার্থীরা। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস বন্ধ হয়ে যায়। শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে শনিবার দুপুর থেকে রোববার দুপুর পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টা অবরুদ্ধ থাকার পর ৩৩ ক্রেডিট বাতিলের দাবি মেনে নেয় কর্তৃপক্ষ। এরপর রোববার রাতেই আন্দোলনে যাবার ঘোষণা দেন রুয়েট শিক্ষক সমিতি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ