এবার সেই শরবত বিক্রেতা সাদেকুলের স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে এলেন পুলিশ কমিশনার

আপডেট: নভেম্বর ১১, ২০২১, ৪:৩১ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক :


রাজশাহী’র শরবত বিক্রেতা অদম্য, পরিশ্রমী ও মেধাবী শিক্ষার্থী সাদেকুলকে পুনাক সভাপতি জীশান মীর্জার সহায়তার পর তার শিক্ষা কার্যক্রম নির্বিঘ্নে চালিয়ে যাওয়ার জন্য এবার এগিয়ে এসেছেন আরএমপি’র পুলিশ কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক মহোদয়। খবর বিজ্ঞপ্তির।
বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) সকাল ১০ টায় আরএমপি সদরদপ্তরে আলোচিত সেই শরবত বিক্রেতা মো. সাদেকুল ইসলাম পুলিশ কমিশনারের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। পুলিশ কমিশনার সাদেকুলের লেখাপড়াসহ সাবির্ক বিষয়ে খোঁজ খবর নেন।

এসময় পুলিশ কমিশনার সাদেকুলের শিক্ষা জীবন নির্বিঘ্ন করতে তার স্নাতক ১ম বর্ষের বইসহ শিক্ষা উপকরণ কেনার জন্য আর্থিক সহায়তায় প্রদান করেন।
প্রসঙ্গগত, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ‘শরবত বিক্রির ফাঁকে চলছে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রস্তুতি” শিরোনামে দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকায় খবর প্রকাশিত হলে বিষয়টি বাংলাদেশ পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি’র সভাপতি জীশান মীর্জার নজরে আসে।

তাঁর আন্তরিক উদ্যোগে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের পুলিশ কমিশনারের নির্দেশে আরএমপি ডিবি’র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মো. আব্দুল্লাহ আল মাসুদ দৈনিক প্রথম আলো রাজশাহী’র নিজস্ব প্রতিবেদক জনাব আবুল কালাম মুহম্মদ আজাদের সাথে যোগাযোগ করে সাদেকুল ইসলামকে খুঁজে বের করেন।
পরবর্তীতে ১০ অক্টোবর ২০২১ আরএমপি সদরদপ্তরে পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি, আরএমপি কর্তৃক আয়োজিত সামাজিক কল্যাণমূলক কার্যক্রম অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) সভাপতি ও ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ,

বাংলাদেশ এর সহধর্মিণী জীশান মীর্জার পাঠানো উপহার ফুডপান্ডার খাবার সরবরাহের জন্য সাইকেল, হেলমেট ও মোবাইল ফোন সাদেকুলের হাতে তুলে দেন আরএমপি’র পুলিশ কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক।
এবার সাদেকুলের উচ্চ শিক্ষার স্বপ্ন পূরণে আর্থিক সহায়তা দিলেন আরএমপি’র পুলিশ কমিশনার।
নির্বিঘ্নে পড়ালেখা করতে আর্থিক সহায়তা পেয়ে সাদেকুল আরএমপি’র পুলিশ কমিশনারকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ