এলপিজির দাম কমছে না কেন: হাইকোর্ট

আপডেট: নভেম্বর ১৩, ২০১৬, ১১:৫৬ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশ্ববাজারে দাম কমার পরও দেশে বাসাবাড়িতে ব্যবহারযোগ্য তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) সিলিন্ডারের দাম পুনর্র্নিধারণ না করা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়েছে আদালত।
ভোক্তা অধিকার সংগঠন ক্যাবের দায়ের করা এক রিট আবেদন শুনে বিচারপতি মো আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি খসরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ রোববার এ আদেশ দেয়।
বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) চেয়ারম্যানকে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে বলে রিট আবেদনের পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. সাইফুল আলম জানান। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আল আমিন সরকার।
পরে সাইফুল আলম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “২০০৯ সালে সাড়ে ১২ কেজি ওজনের এলপিজি সিলিন্ডারের দাম ৭০০ টাকা নির্ধারণ করে দেয় বিইআরসি। এরপর আন্তর্জাতিক বাজারের এই গ্যাসের দাম কয়েক দফা কমলেও আমাদের এখানে গণশুনানি করে দাম পুনর্র্নিধারণ করা হয়নি।”
এলপিজি সিলিন্ডারের দাম পুনঃন্র্ধিারণে নির্দেশনা চেয়ে গত ৩১ জুলাই জ্বালানির মূল্য নির্ধারক সংস্থা বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনে (বিইআরসিতে) আবেদন করে। তিনি বলেন, “ওই আবেদনটি নিষ্পত্তি না করে রহস্যজনকভাবে ঝুলিয়ে রাখে বিইআরসি। যে কারণেই আদালতের শরণাপন্ন হতে হয়েছে।”
ক্যাবের এই আইনজীবী জানান, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন আইন-২০০৩ এর ২২ (খ) এবং ৩৪ ধারা অনুযায়ী এলপিজি, গ্যাস, বিদ্যুৎ ও তেলসহ সকল জ্বালানির মূল্য নির্ধারণের আইনগত দায়িত্ব বিইআরসির উপর বর্তায়। এই কমিশন বিশ্ব বাজার ও দেশীয় চাহিদার ভিত্তিতে গণশুনানির মাধ্যমে মূল্য পুনর্নির্ধাারণ করে থাকে।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ