এসএসসিতে পরীক্ষার্থী বেড়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৭, ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ১৭ লাখ ৮৬ হাজার ৬১৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নেবে; ২ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে একযোগে শুরু হবে স্কুলপড়ুয়াদের এই শেষ পরীক্ষা।
গত বছর এই পরীক্ষায় ১৬ লাখ ৫১ হাজার ৫২৩ জন অংশ নিয়েছিল। এই হিসেবে মাধ্যমিকে এবার পরীক্ষার্থী বেড়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৯০ জন।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এবারের মাধ্যীমিক পরীক্ষার বিভিন্ন পরিসংখ্যান তুলে ধরেন।
>> এবার তত্ত্বীয় পরীক্ষা চলবে ২ ফেব্রুয়ারি থেকে ২ মার্চ পর্যন্ত। ৪ থেকে ১১ মার্চ হবে ব্যবহারিক পরীক্ষা।
>> ২৮ হাজার ৩৪৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ৩ হাজার ২৩৬টি কেন্দ্রে এসএসসি ও সমামানের পরীক্ষায় অংশ নেবে।
>> এবার আটটি সাধারণ বোর্ডের অধীনে এসএসসিতে ১৪ লাখ ২৫ হাজার ৯০০ জন, মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে দাখিলে ২ লাখ ৫৬ হাজার ৫০১ জন এবং কারিগরি বোর্ডের অধীনে এসএসসি ভোকেশনালে ১ লাখ ৪ হাজার ২১২ জন পরীক্ষা দেবে।
>> পরীক্ষার্থীদের মধ্যো ৯ লাখ ১০ হাজার ৫০১ জন ছাত্র; ৮ লাখ ৭৬ হাজার ১১২ জন ছাত্রী।
শিক্ষামন্ত্রী জানান, এবারও বাংলা দ্বিতীয় পত্র এবং ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র ছাড়া অন্য সব বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হবে।
এসএসসিতে এবার থেকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি এবং ক্যারিয়ার শিক্ষা বিষয়ে পরীক্ষায় বসবে শিক্ষার্থীরা।
# দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, সেরিব্রাল পালসজনিত প্রতিবন্ধী এবং যাদের হাত নেই এমন প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীরা স্ক্রাইব (শ্রুতি লেখক) সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে। এ ধরনের প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীদের অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় দেয়া হবে।
# অটিস্টিক ও ডাউন সিনড্রোম প্রতিবন্ধীরা অতিরিক্ত ৩০ মিনিট সময় পাবে এবং শিক্ষক, অভিভাবক বা সাহায্যকারীর বিশেষ সহায়তায় পরীক্ষা দিতে পারবে।
প্রশ্ন ফাঁসরোধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়ে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের উদ্দেশে নাহিদ বলেন, “দয়া করে মিথ্যা ফাঁস করা প্রশ্নের পেছনে ছুটবেন না।”
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আলমগীর, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক এস এম ওয়াহিদুজ্জামান ছাড়াও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।- বিডিনিউজ