এসিডি ও লফসের নারী-শিশু নির্যাতনের চিত্র

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৭, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



রাজশাহী জেলায় গত এক মাসে ৩১ নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটে ২১টি। আর শিশু নির্যাতন ১০টি। অ্যাসোসিয়েশন ফর কমিউনিটি ডেভেলপমেন্টের (এসিডি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
এসিডির প্রকল্প সমন্বয়কারী এহসানুল আমিন ইমন স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জেলায় এই মাসে ২১টি নারী নির্যাতনের খবর তারা পেয়েছে। এর মধ্যে নগরীর চারটি থানায় সংঘটিত হয়েছে ১০টি। নগরীর বাইরের ৯ থানায় সংঘটিত হয়েছে ১১টি নির্যাতনের ঘটনা। এর মধ্যে দুর্গাপুরে ৪টি, বাঘায় ৩টি, চারঘাটে ২টি, মোহনপুরে ১টি এবং গোদাগাড়ীতে ১টি নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনার মধ্যে হত্যা ১টি, হত্যার চেষ্টা ১টি,  রহস্যজনক মৃত্যু ১টি, ধর্ষণের চেষ্টা ১টি, আত্মহত্যা ৩টি এবং মারপিটের মতো অন্যান্য ঘটনা ১৪টি।
এদিকে গত এক মাসে জেলায় শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে ১০টি। এর মধ্যে নগরীতে সংঘটিত হয়েছে ১টি এবং নগরীর বাইরের ৯ থানায় সংঘটিত হয়েছে ৯টি। এদের মধ্যে বাঘায় ২টি, গোদাগাড়ীতে ২টি, দুর্গাপুরে ২টি, বাগমারা ১টি, মোহনপুরে ১টি এবং পবায় ১টি শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনার মধ্যে হত্যা ১টি, ধর্ষণ ১টি, মানবপাচার ১টি, অপহরণ ২টি, আত্মহত্যা ১টি, আত্মহত্যার চেষ্টা ১টি এবং ৩টি অন্যান্য নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।
এসিডি বলছে, স্থানীয় ও জাতীয় সংবাদপত্রে প্রকাশিত সংবাদ ও তাদের নিজস্ব জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে।
এদিকে, উন্নয়ন সংস্থা লেডিস অর্গানাইজেশন ফর সোসাল ওয়েলফেয়ার (লফস) জেলায় দীর্ঘদিন যাবৎ নারী ও শিশুর উন্নয়নে কাজ করছে। মানবাধিকার সংগঠন হিসবে লফস সংস্থার ডকুমেন্টেশন সেল থেকে রাজশাহীর প্রচারিত দৈনিক পত্রিকার সংবাদের ভিক্তিতে নিয়মিত নারী ও শিশু নির্যাতনের পরিস্থিতি প্রকাশ করে। লফস মানে করে এ অঞ্চলে নারী ও শিশু নির্যাতন পরিস্থিতি বিভিন্ন মাত্রায় অবনতি ঘটছে। যৌতুক ও পরকীয়ার কারণে অধিকাংশ নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। এছাড়া পারিবারিক কলহ ও প্রেম ঘটিত কারনে হত্যা-আত্মহত্যা ও অমানুবিক নির্যাতনের মতো ঘটনা ঘটছে। বিষয়গুলো সকলের জন্য উদ্বেগজনক। জানুয়ারী মাসে অমানুবিক কিছু ঘটে যাওয়া ঘটনার চিত্র- বাগমারায় ৮ বছরের শিশু ধর্ষনের অভিযোগে কলেজ শিক্ষক গ্রেফতার, নগরীর মেডিকেল হাসপাতাল সংলগ্ন ড্রেন থেকে নবজাতকের লাশ উদ্ধার, রাজশাহী নগড় মাতৃসনদ হাসপাতাল জন্মের ছয় ঘন্টার মাথায় নবজাতক চুরি ও কয়েকদিন পর উদ্ধার, বাঘা উপজেরার চাকিপাড়া গ্রামে বাবার বিরুদ্ধে দুই মেয়ের নির্যাতনের অভিযোগ, দূর্গাপুরে বিষপানে গৃহবধুর আত্মহত্যার চেষ্ঠা, কাটাখালিতে গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু পরিবারের দাবি হত্যা, দূর্গাপুরে সম্পতির লোভে মাকে হত্যার উদ্দেশ্যে পিটিয়ে আহত করেছে নিজ মে ও জামাই, মহনপুরে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগ,  দূর্গাপুর নওয়াপাড়া এলাকায় ৪২ বছর বয়সী এক প্রতিবন্ধি নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ, নগরীতে বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় এক গৃহবধু নারীকে প্রকাশ্যে নির্যাতন, চারঘাট উপজেলার সাদীপুর গ্রামে মেহেদির রং শুকিয়ে যাওযার আগে নববধুর রহস্যজনক আত্বহত্যার ঘটনাগুলো সমাজে উদ্বেগ সৃষ্টি করছে। লফস এর নির্বাহী পরিচালক শাহনাজ পারভীন বলেন, সংবাদ পত্রে  প্রকাশিত ঘটনার বাইরেও অনেক ঘটনা ঘটে যা প্রকাশিত হয় না। রাজশাহীতে নারী ও শিশু নির্যাতনের প্রকাশিত তথ্য হতাশজনক। রাজশাহী অঞ্চলে নারী-শিশু নির্যাতনসহ সার্বিক ঘটনাগুলোর সুষ্ঠ তদন্ত ও দায়ীদের দিষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন। তিনি বলেন, অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করা না গেলে ক্রমশই অপরাধীরা উৎসাহিত হবে এবং অপরাধ মাত্রা বৃদ্ধি পাবে। লফস সকল  নারী-শিশু নির্যাতন ঘটনাগুলোর সুষ্ঠ তদন্ত স্বাপেক্ষে অপরাধীর কঠোর শাস্তির দাবি জানান। গত মাসে শিশু ১৩ জন, নারী ২০ জনসহ মোট ৩৩ জন নির্যাতনের স্বীকার হয়। এছাড়া সম্প্রতি নগরীর মাতৃসদন হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরির ঘটনায় লফস এর উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ