এ কী কা-! বিয়ের আসরে হবু বরের সামনেই তরুণীর সিঁথিতে সিঁদুর পরালেন প্রাক্তন প্রেমিক

আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০২১, ৬:৪১ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:


বর এবং কনে দু’জনে দাঁড়িয়ে রয়েছেন। বিয়ের আচার অনুষ্ঠান পালনে ব্যস্ত দু’জনে। তারই মাঝে বিয়ের আসরে হাজির কনের প্রাক্তন প্রেমিক। কিছু বুঝে ওঠার আগেই কনেকে সিঁদুর পরিয়ে দিলেন তিনি। কী ভাবছেন, এটি কোনও বলিউড ছবির দৃশ্য? মোটেও না। বাস্তবে এমন কা-ই ঘটল উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরে। সেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে নেটদুনিয়ায়। যা নিয়ে চলছে জোর চর্চা।

সম্প্রতি নেটদুনিয়ায় ওই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, বিয়ের আসরে বর ও কনে দাঁড়িয়ে রয়েছেন। মালাবদলের প্রস্তুতি তুঙ্গে। ঠিক সেই সময় মুখে কাপড় বাঁধা অবস্থায় এক যুবক চলে আসেন। চোখের নিমেষে প্রায় জোর করে কনের সিঁথিতে সিঁদুরে রাঙিয়ে দেন সেই যুবক। অবাক হয়ে যান কনে। তাঁর আত্মীয়রা মারধরও করেন ওই যুবককে।

জানা গিয়েছে, বেশ কয়েক বছর ধরে ওই যুবকের সঙ্গে কনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। মাঝে ভিনরাজ্যে কাজ করতে গিয়েছিলেন সেই যুবক। দূরত্ব বাড়ার পরই সম্পর্কও উষ্ণতা হারাতে শুরু করে। এদিকে, কনের আত্মীয়রাও এই যুবকের সঙ্গে সম্পর্ক মানতে পারেননি। তাই তরুণীর বিয়ে স্থির করেন অন্য়ত্র। গত ১ ডিসেম্বর পরিবারের পছন্দ করা পাত্রের সঙ্গে তরুণীর বিয়ের আয়োজন করা হয়। সে খবর পান ওই যুবক। তারপরই প্রাক্তন প্রেমিকার বিয়ের আসরে চলে আসেন যুবক। কার্যত জোর করে তাঁর সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দেন।

ভিডিও ভাইরাল হওয়ামাত্রই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে জোর হইচই। মন্তব্য বাক্সে বইছে ঝড়। কেউ কেউ যুবকের পদক্ষেপকে বেশ সাহসী বলেই উল্লেখ করেছেন। আবার কারও কারও দাবি, ওই যুবক আদতে তরুণীর উপর জোরজুলুম করেছেন। তা আদৌ তাঁর করা উচিত হয়নি বলেও মত। কেউ কেউ এই ঘটনা নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে উত্তরপ্রদেশ প্রশাসনের রুগ্ন দশার কথা উল্লেখ করেছেন। তাঁদের মতে, উত্তরপ্রদেশ বলেই এই ঘটনা ঘটানো সম্ভব হয়েছে। নইলে তা সম্ভব হত না। যদিও এত কা-ের পরেও লাভ হয়নি কিছুই। কারণ, অবশেষে পরিবারের পছন্দ করা যুবকের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন তরুণী।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন