ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার অঙ্গীকার || লিটনকে শুভেচ্ছা জানালেন মোহাম্মদ আলী

আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০১৭, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথমবারের মতো নগর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে গেলেন মোহাম্মদ আলী সরকার। গতকাল শনিবার রাত ৮টার দিকে তিনি ফুল ও মিষ্টি নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে যান। এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম নেতা, নগর সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারসহ উপস্থিত আওয়ামী লীগের নেতারা তাকে স্বাগত জানান। এইসময় উভয়ই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার অঙ্গীকার করেন।
গত ২৮ ডিসেম্বর রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা মোহাম্মদ আলী সরকার জয়লাভ করেন। তিনি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। নির্বাচিত হবার পর দলের আমন্ত্রণে এই প্রথম তিনি দলীয় কার্যালয়ে যান।
এ সময় এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, নির্বাচনের সময় আমাদের মাঝে কিছুটা দূরত্ব তৈরি হয়েছিল। কিন্তু নির্বাচিত হবার পর সেই দূরত্ব কেটে গেছে। কারণ মোহাম্মদ আলী সরকার আওয়ামী লীগের বাইরের কেউ না। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দলের জন্য কাজ করছেন। রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-দুই জেলার আওয়ামী লীগেই তার অসামান্য অবদান রয়েছে। নির্বাচিত হওয়ায় আমরা তাকে অভিনন্দন জানাই। এখন থেকে আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবো। তাকে সফল চেয়ারম্যান হিসেবে গড়ে তুলতে দলের পক্ষ যা যা করা দরকার, আমরা করবো।
সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার বলেন, মোহাম্মদ আলী সরকার বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে আজ আমাদের মাঝে এসেছেন। আমরা তাকে স্বাগত জানাই। কোনো ভেদাভেদ নয়, আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে জেলার উন্নয়ন করতে চাই। দলের পক্ষ থেকে আমরা তাকে সব ধরনের সহযোগিতা করতে প্রস্তুত আছি।
এ সময় নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, তিনি সবাইকে নিয়েই জেলা পরিষদ চালাবেন। সবাইকে নিয়েই গড়তে চান একটি আদর্শ জেলা পরিষদ। সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করলে রাজশাহীতে উন্নয়নের জোয়ার বয়ে যাবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।
এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, সৈয়দ শাহাদৎ হোসেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, নাঈমুল হুদা রানা, আইন সম্পাদক অ্যাড. মুসাব্বিরুল ইসলাম, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফিরোজ কবির সেন্টু, উপ-দপ্তর সম্পাদক শফিকুল ইসলাম দোলন, সদস্য এনামুল হক কলিন্স, হাবিবুর রহমান বাবু, মকিদুজ্জামান জুরাত, আব্দুস সালাম, নগর স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক জেডু সরকার, নগর শ্রমিক লীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সোহেল প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ