ওমিক্রন: আফ্রিকার ৭ দেশ থেকে ফিরলে নিজ খরচে কোয়ারেন্টিন

আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০২১, ৫:১০ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক :


করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রণের বিস্তার ঠেকাতে আফ্রিকার ৭ দেশের যাত্রীদের ক্ষেত্রে কোয়ারেন্টিনের কড়াকড়ি আরোপ করেছে বাংলাদেশ।
বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) বৃহস্পতিবার এক সার্কুলারে জানিয়েছে, ওই সাত দেশ থেকে বাংলাদেশে আসা যাত্রীদের নিজ খরচে ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।
বাংলাদেশ সময় শনিবার দুপুর ১২টা থেকে এ নিয়ম কার্যকর হবে বলে বেবিচকের ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড রেগুলেশন বিভাগের ওই সার্কুলারে জানানো হয়েছে।

আফ্রিকার এই সাত দেশ হল: বতসোয়ানা, লেসোথো, ইসোয়াতিনি, ঘানা, নামিবিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়ে।
এসব দেশ থেকে সরাসরি বাংলাদেশে এলে, অথবা গত ১৪ দিনের মধ্যে এসব দেশের কোনোটিতে ভ্রমণ করে থাকলে বাংলাদেশে আসার পর ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের ওই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।
কোয়ারেন্টিনের ওই দুই সপ্তাহ সরকার নির্ধারিত কিছু হোটেলে নিজ খরচে থাকতে হবে তাদের। সেজন্য বাংলাদেশের পথে রওনা হওয়ার আগেই হোটেল বুকিং দিতে হবে।

সেই সঙ্গে যাত্রা শুরুর আগের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্তের আরটিপিসিআর পরীক্ষা করিয়ে ‘কোভিডমুক্ত’ সনদ নিয়ে আসতে হবে। তবে ১২ বছরের কম বয়সীদের ক্ষেত্রে এ বাধ্যবাধকতা থাকবে না।
বাংলাদেশে আসার পর হোটেলে থাকা অবস্থায় সপ্তম ও চতুর্দশ দিনে করোনাভাইরাস শনাক্তের আরটিপিসিআর পরীক্ষা করাতে হবে। সংক্রমণ ধরা পড়লে তাকে হাসপাতালে আইসোলেশনে রাখা হবে।

বৃহস্পতিবার ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্থাপিত বিদেশগামীদের করোনাভাইরাস নমুনা পরীক্ষাগার পরিদর্শনে গিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, কোয়ারেন্টিন থেকে কেউ পালালে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি