ওরেগনে ট্রাম্প বিরোধী ‘দাঙ্গা’

আপডেট: নভেম্বর ১১, ২০১৬, ১১:১৭ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক
ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া বিক্ষোভ দ্বিতীয় রাতের মত চলছে। ওরেগন অঙ্গরাজ্যের সর্ববৃহৎ নগর পোর্টল্যান্ডে বিক্ষোভ সহিংস আকার ধারণ করেছে।
বিবিসি’র খবরে বলা হয়, বৃহস্পতিবার রাতে কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী নগরীর কেন্দ্রস্থলে জড়ো হয়। তারা দোকান ও গাড়ি ভাংচুর করে, পটকা ছুড়ে মারে এবং আবর্জনার স্তুপে আগুন ধরিয়ে দেয়। পুলিশ ওই পরিস্থিতিকে দাঙ্গা ঘোষণা করে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পেপার স্প্রে এবং কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট ব্যবহার করে। গ্রেপ্তার করা হয় অন্ত ২৯ জনকে।
বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের হাতে ব্যাট এবং পাথর ছিল। তারা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে লক্ষ্য করে সেগুলো ছুড়ছিল বলে অভিযোগ করে পুলিশ। তবে অন্যান্য নগরীতে বুধবার রাতের তুলনায় বৃহস্পতিবার রাতে বিক্ষোভকারীদের সংখ্যা কম ছিল বলে জানিয়েছে বিবিসি।
ওদিকে, মঙ্গলবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর তার বিরুদ্ধে দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া বিক্ষোভে  ‘গণমাধ্যমের ইন্ধন’ দেখছেন ট্রাম্প।
বৃহস্পতিবার রাতে এক টুইটে তিনি বলেন, “খোলামেলা ও সবচেয়ে সফল একটি নির্বাচন মাত্র শেষ হল। আর এখন গণমাধ্যমের উসকানিতে পেশাদার প্রতিবাদকারীরা রাস্তায় নামছে।  খুবই অন্যায়।”
মঙ্গলবারের নির্বাচনে ওরেগন অঙ্গরাজ্যে ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন ৫১ শতাংশ এবং ট্রাম্প ৪১ শতাংশ ভোট পান। ট্রাম্পের শীর্ষ উপদেষ্টা এবং নিউ ইয়র্কের সাবেক মেয়র রুডি জুলিয়ানি ফক্স নিউজকে বলেন, কলেজ ক্যাম্পাসের বিক্ষোভকারীরা ‘একদল বিপথগামী ছিঁচকাদুনে শিশু’।
ফিলাডেলফিয়ায় বিক্ষোভকারীরা সিটি হলের কাছে জড় হয়। তাদের হাতে থাকা প্ল্যাকার্ডে ‘আমাদের প্রেসিডেন্ট নন’, ‘ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ট্রান্স’ ‘আমেরিকাকে সবার জন্য নিরাপদ কর’ ইত্যাদি লেখা ছিল।
বাল্টিমোর পুলিশ জানায়, প্রায় ছয়শ জনের একটি দল নগরীতে মিছিল করে এবং সড়ক অবরোধ করে।
সান ফ্রানসিককোতে উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীরা রংধনু রঙের ব্যানার নিয়ে মিছিল করে, অনেকের হাতে মেক্সিকোর পতাকাও ছিল।
শিকাগোতে ট্রাম্প টাওয়ারের সমনেও বিক্ষোভকারীদের ছোট একটি দল জড় হয়। এ সময় পথচারী ও গাড়ি চালকদের তাদের প্রতি বিরক্তি প্রকাশ করতে দেখা যায়।
মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট এনরিক পেনা নিয়েতো ট্রাম্প সরকারের সঙ্গে মেক্সিকোর ইতিবাচক সম্পর্কের বিষয়ে আশা প্রকাশ করেছেন। দুই নেতা বৈঠকের বিষয়েও একমত হয়েছেন বলে জানান নিয়েতো। জানুয়ারিতে ওই বৈঠক হতে পারে।- বিডিনিউজ