ওয়ানডের হতাশা ভুলে টি-টোয়েন্টি জয়ের প্রত্যয়

আপডেট: এপ্রিল ৩, ২০১৭, ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



টেস্ট আর ওয়ানডে সিরিজ শেষ, এবার ২০ ওভারের ক্রিকেটের অপেক্ষা। আগামীকাল মঙ্গলবার শুরু হবে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ কোনও দলই জিততে পারেনি। টেস্ট সিরিজে পিছিয়ে থেকে ড্র করেছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে ওয়ানডেতে এগিয়ে গেলেও সিরিজ জিততে পারেনি মাশরাফির দল। তবে এ নিয়ে হাহুতাশ করতে রাজি নয় টাইগাররা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সবচেয়ে সংক্ষিপ্ত সংস্করণে সাফল্য নিয়ে দেশে ফিরতে চায় তারা।
গতকাল রোববার তাজ সমুদ্র হোটেলে বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন আশার কথাই শোনালেন। টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশের ভাবনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমাদের জন্য প্রত্যেকটা ফরম্যাট গুরুত্বপূর্ণ। সবখানেই আমরা জয়ের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামি। আমাদের পরিকল্পনাগুলো সেভাবেই করা হয়। আমরা সিরিজ জিতে দেশে ফিরতে চাই। আমার বিশ্বাস, ছেলেরা যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী। আমরা নিজেদের পরিকল্পনাগুলো যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করতে পারলে জয় অবশ্যই সম্ভব।’
শনিবার শ্রীলঙ্কাকে প্রথম কোনও সিরিজে হারানোর সুযোগ ছিল বাংলাদেশের সামনে। কিন্তু তৃতীয় ওয়ানডে হেরে যাওয়ায় ‘ইতিহাস’ গড়তে পারেনি তারা। মাশরাফিরা অবশ্য এই ব্যর্থতা নিয়ে মাথা ঘামাতে রাজি নন। টাইগারদের ভাবনায় এখন শুধুই সামনের দুই ম্যাচ। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক সুজনের বক্তব্য, ‘আমাদের সামনে এখন দুটি টি-টোয়েন্টি। ওখানেই পুরো দলের ফোকাস। যদিও এই ফরম্যাটে আমরা এখনও তেমন পারদর্শী নই। অন্যদিকে শ্রীলঙ্কা অনেক শক্তিশালী এই সংস্করণে। তারপরও আমি মনে করি ভালোই প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। পরিকল্পনাগুলো ঠিকঠাক মাঠে প্রয়োগ করতে পারলে আমার মনে হয় অসম্ভব কিছু ঘটবে।’
বাংলাদেশের জন্য ইতিবাচক দিক অভিজ্ঞতা। অভিজ্ঞতায় শ্রীলঙ্কার চেয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে রাখছেন সুজন। তার মতে, টি-টোয়েন্টি সংস্করণে কেউই ভালো দল নয়।  নির্দিষ্ট সময়ে যারা ভালো খেলবে, তাদের জয়ের সম্ভাবনা উজ্জ্বল। এ বিষয়ে বাংলাদেশ দলের ম্যানেজারের অভিমত, ‘অভিজ্ঞতার দিক থেকে আমরা এগিয়ে। অবশ্য শ্রীলঙ্কাও ভালো করছে। জিততে হলে অবশ্যই আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে। টি-টোয়েন্টিতে ভুল হয়ে গেলে শোধরানোর সুযোগ খুব কম পাওয়া যায়।’
বিশ্বের সব প্রান্তে টি-টোয়েন্টি খেলার অভিজ্ঞতায় ঋদ্ধ সাকিব আল হাসান। তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিমেরও বেশ কিছু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে। মুস্তাফিজুর রহমান তো আইপিএলে প্রথম খেলতে নেমেই হৈচৈ ফেলে দিয়েছিলেন। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের আইপিএল জয়ে ‘দ্য ফিজ’ এর ছিল বিশাল অবদান। সুজনের কণ্ঠে তাই আশাবাদের সুর, ‘আমাদের দলে বেশ কয়েকজন ভালো খেলোয়াড় আছে, যারা ম্যাচ জেতানোর ক্ষমতা রাখে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে টি-টোয়েন্টি খেলার অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ তারা। সব মিলিয়ে আমি মনে করি আমাদের ভালো সুযোগ আছে টি-টোয়েন্টিতে।’
ওয়ানডে সিরিজ জয়ের সুযোগ হাতছাড়া হলেও মানসিকভাবে যথেষ্ট শক্ত রয়েছেন ক্রিকেটাররা। টি-টোয়েন্টিতে মাশরাফিরা ভালোভাবেই ‘কামব্যাক’ করবেন বলে মনে করেন দলের ম্যানেজার, ‘আমি মনে করি না গতকাল হেরে যাওয়ায় আমাদের সব কিছু শেষ হয়ে গেছে। সিরিজ জয়ের দারুণ একটা সুযোগ ছিল ঠিকই, কিন্তু শ্রীলঙ্কা আমাদের চেয়ে ভালো ক্রিকেট খেলেছে বলেই আমরা পারিনি। তবে ভালো একটা সুযোগ নষ্ট হলেও ছেলেদের আত্মবিশ্বাসে চিড় ধরেনি। পরের ম্যাচেই আমরা ভালোভাবে ঘুরে দাঁড়াবো।’-বাংলা ট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ