ক।বি।তা

আপডেট: ডিসেম্বর ২, ২০১৬, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

প্রতারক
শাহ মো. জিয়াউদ্দিন

কবিতা লিখছি আমি, নই আমি কবি,
দেশের সাম্যবাদের রাজনীতিতে দেখি প্রতারকের ছবি।
ভবনটিকে ঘিরে মূলত তাদের রাজনীতির পয়েন্ট,
জেলায় জেলায় তাই বানিয়েছে নিজস্ব কিছু এজেন্ট।
মানুষের সরলতায় হাতিয়ে নেয় টাকাকড়ি অর্থ
কেন্দ্রিকতার নামে দল রক্ষা করে প্রতারকের স্বার্থ।
প্রতারকরা ফিদেলের নামে দেয় যখন বক্তৃতা ,
সাধারণ মানুষ জানায় এদের ঘৃণা আর তিক্ততা।
ফিদেল নাম উচ্চারণের যোগ্যতা এদের নাই,
এরাও নাকি ফিদেলের আদর্শিকÑ এই করে বড়াই ।
প্রতারকরা মানবমুক্তির নামে দেয় যখন হুংকার,
প্রকৃত কমিউনিস্টরা হয়ে যায় লজ্জায় একাকার।
মার্কসবাদী মুখোশধারী হয় প্রমাণ তাই,
প্রকৃত কমিউনিস্টরা আর এদের সাথে নাই।

কোন পশুর নামে গালি দেয়াটা হবে না তো ঠিক,
পশুর চেয়ে নিকৃষ্ট এরা, স্বার্থ রক্ষায় চলে দিক বেদিক।
মৌলবাদীদের সাথে এদের কোন পার্থক্য নাই,
রাজনীতিতে মৌলাবাদী আর এদের  একই সুর পাই।
চোরে চোরে মাসতুতো ভাইÑ মিলেমিশে বেঁধেছে ঘর ,
অচিরেই মানুষই আওয়াজ তুলবেÑ এই প্রতারক ধর ধর।

 

মৃত্যুর অপেক্ষায়
শামীউল আলীম শাওন

জীবনের প্রতি বিরক্ত হয়ে হারিয়েছি
বেঁচে থাকার আগ্রহ আর ইচ্ছেÑ
ইচ্ছে করে না কিছুই করতে
পারি না নিজের জীবনটাকে
নিজের হাতে শেষ করতে
পারি না অজানা পথে পারি দিতে
তাই তো চেয়ে থাকি মৃত্যুর অপেক্ষায়
বিধাতা কখন আমায় ডাক দিবেন পরপারে
তাঁর দূতের মাধ্যমে তারই প্রতীক্ষায়…

 

আমি মুক্তি চাই
অসীম শূন্য

আমি মুক্তি চাই,
আকাশটা আঁকবো বলে ।
দুটো লাইন পরে থেমে থাকা কবিতাটি!
পায়ের ছাপ মুছে যেতে চায়, তার
ছোট্ট রাজ্যটায় কোন সন্ধ্যার ভোরে,
কারোর বৃষ্টির ফোঁটা থেকে ঝরা
গুচ্ছ কয়েক ঘৃণা ।
চাই ভালো থাক তোরা, সকাল সন্ধ্যাগুলো ,
সূর্যের লালিমায় থাকবে না হয়তো ছায়া,
তবু ভোরে ছায়াহীন কারোর কালো অবয়ব
বা জানালার কাঁচে শিশিরের অগোছালো বিন্দু।
শূন্য আমি, অসীমে যাত্রা ছিল,
মহাকালের ছোট্ট একটি শহরের আলোর লোভে পড়ে,
মিল্কিওয়ের নিয়ম ভেঙে আজ গ্যালাক্সির ক্ষোভে!
তবু ধুলোর ঝড় বয়ে নিয়ে যাওয়ার পথেই,
নিশ্বাস আটকে রাখা অক্সিজেনহীন সিলিন্ডারের দৃষ্টির মাঝে,
খুঁজে পেয়েছি আমার যাত্রাগুলো!

মুক্তি চাই আমি,
আমার রাজ্যটা আবার ফিরে পেতে,
আকাশ, কবিতা বা পায়ের ছাপ,
আমার ‘আমি’র খোঁজে শূন্যে হারাতে…

মগ্নতা
কাজী শোয়েব শাবাব

চুপ করে বসো
পবিত্র গ্রন্থের মত স্পর্শ করি তোমায় খুব ভোরে
রেহেলে মেলে ধরো আপন পুণ্যশ্রী
পড়ি তোমায় পাতায় পাতায়
প্রাণভরে দেখি অনিমেষ

আসুক বেনোজল
নিয়ে যাক ভেসে আমাদের
তবু আমার সামনে তুমি
তোমার সামনে আমি
বসে রবো দুজন দারুণ মগ্নতায়…