কবুতর খেলায় ভাঙছে সংসার

আপডেট: আগস্ট ৫, ২০১৭, ১২:৪৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


তালাকের হার বেড়ে যাচ্ছে ইন্দোনেশিয়ার একটি প্রদেশে। সেখানকার জনপ্রিয় কবুতর খেলার প্রতি মানুষের ভালোবাসাকেই তালাকের জন্য দায়ী করা হচ্ছে। দেশটির বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে তেমনটাই বলা হচ্ছে। খবর বিবিসির।
সেন্ট্রাল জাভা প্রদেশের পূর্বালিঙ্গা রিলিজিয়াস কোর্টের একজন কর্মকর্তা বলছেন, তাদের অফিসে জুলাই মাসেই তালাকের অন্তত ৯০টি পিটিশন হয়েছে। অথচ জুন মাসে এই সংখ্যাটা ছিল মাত্র ১৩ টি।
আদালতের একজন কর্মকর্তা নূর আফলাহ জানান, যারা তালাকের পিটিশন করছেন তারা সবাই নারী। তারা অর্থনৈতিক বিষয়কে কারণ হিসেবে তুলে ধরে বলেছেন, তাদের স্বামীরা কবুতর খেলা নিয়ে খুব বেশি পরিমাণে আসক্ত। সেকারণে তাদের সঙ্গে সংসার জীবন চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়।
কবুতর খেলা ইন্দোনেশিয়ায় অত্যন্ত জনপ্রিয়। যেখানে প্রতিযোগীদের সাধারণত অর্থ পুরষ্কার দেয়া হয় এবং এই খেলায় যে কবুতর প্রথম হয়, আশা করা হয় তাকে হাজার টাকার অধিক দামে বিক্রি করা যাবে।
আফলাহ আরও বলেন, সারাদিন কবুতর নিয়ে মেতে থাকেন তার স্বামী। সংসারের প্রতি একটুও মনোযোগ বা সময় না দেয়ার কারণে তিনি অত্যন্ত রাগান্বিত।
এছাড়া অর্থনৈতিক অবস্থাও এই পরিস্থিতিতে আরও কঠিন করে তুলেছে। এই নারীদের অনেকেরই স্বামীরা বেকার। কিছুই করতে চায় না তারা। কাজ করতে হয় নারীদের।
অথচ বেশিরভাগ পুরুষ পাইলট হিসেবে পরিচিত। এখানে পাইলট মানে বিমানের চালক নয়। এইসব পুরুষ তাদের নিজেদের কবুতরদের খেলায় ভালো প্রতিযোগী বানানোর চেষ্টায় মগ্ন থাকেন। তাদের বিমানের মতো করে উড়ানোর চেষ্টা করেন, সেকারণে তাদের পাইলট বলা হয়।
এছাড়া, কবুতর প্রতিযোগিতা নিয়ে যে জুয়া খেলা চলে, সেটাও অনেক পরিবারের অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের কারণ। কারণ, এখানে একজন জয়ী হলেও হেরে যান অনেকেই।
জয়ী হলে কিছু টাকা স্ত্রীর হাতে তুলে দিতে পারলেও, হেরে গিয়ে বেশিরভাগ সময় স্ত্রীর কাছে তাদের হাত পাততে হয়। সূত্র : বিবিসি

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ