কমেছে মুরগি ও মাছের, বেড়েছে সবজি ও পেঁয়াজের দাম

আপডেট: জুন ৭, ২০২৪, ১১:৪৯ অপরাহ্ণ

কমেছে মুরগি ও মাছের, বেড়েছে সবজি ও পেঁয়াজের দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক:


২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে বৃহস্পতিবার (৬ জুন)। বাজেটের পরে বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম আবারও বাড়ছে। তবে এক সপ্তাহের ব্যবধানে মাছ ও মুরগির দাম করেছে। গরু ও খাসির মাংসের দাম স্থিতিশীল আছে।
শুক্রবার (৭ জুন) রাজশাহী নগরীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, ডিম, পেঁয়াজ ও আলুর মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম অত্যন্ত চড়া। এছাড়াও প্রায় প্রতিটি পণ্যের দামও কমবেশি বাড়তি। যে কারণে বাজারে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি হালি লাল ডিম বিক্রি হচ্ছে ৫২ টাকায়। সাদা ডিম বিক্রি হচ্ছে ৪৮ টাকা হালিতে। বেড়েছে বাজারের সবচেয়ে প্রয়োজনীয় সবজি আলুর দাম। গত বছর থেকে আলুর দাম অসহনীয়। এখন বাজারে প্রতি কেজি আলু ৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে, যা কয়েকদিন আগেও ৫০ টাকা ছিল। গত এক সপ্তাহে কেজিতে ১৫ টাকা বেড়ে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৮০ থেকে ৮৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে, যা গত সপ্তাহে ৭০ টাকা ছিল। এদিকে পেঁয়াজের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়তি আদা-রসুনের দামও। প্রতি কেজি আদা ও রসুন ২৪০ থেকে ২৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে প্রতিকেজি করলা বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা, গত সপ্তাহে ছিল ৬০ টাকা। এছাড়াও বেগুন বিক্রি হচ্ছে মানভেদে ৫০ থেকে ৬০ টাকা। টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকা। কচুর লতি বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা এবং কচুর মুখি বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ১০০ টাকা করে। পেঁপে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা। বরবটি বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকা, গাজর ১০০ টাকা, শসা বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা, এছাড়াও ঢ্যাঁড়স ৫০ টাকা। মিষ্টিকুমড়া ৫০, ঝিঙে ও ধুন্দুল ৬০, সজনে ডাঁটা ৮০-১২০, পটল ৫০-৬০, কাঁচামরিচ ২০০, লাউ ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।।

এদিকে কমেছে ব্রয়লার মুরগি ও সোনালী মুরগির দাম। এ সপ্তাহে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হয়েছে ১৮০ থেকে ১৯০ টাকায় ও সোনালী মুরগি বিক্রি হয়েঝে ৩০০ থেকে ৩২০ টাকায়। গরু প্রতিকেজি ৭৫০ টাকা ও খাসি ১১০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

পাঙাশ মাছ প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২২০ টাকায়, তেলাপিয়া প্রতি কেজি ২২০ থেকে ২৪০ টাকায়, চাষের শিং মাছ প্রতি কেজি ৪৮০ থেকে ৫০০ টাকায়, রুই প্রতি কেজি ৩২০ থেকে ৩৫০ টাকায়, চাষের কই প্রতি কেজি ৩০০ টাকায়, দেশি ছোট কই প্রতি কেজি ৬০০ থেকে ৭০০ টাকায়, পাবদা প্রতি কেজি মানভেদে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায়, শোল মাছ একটু বড় সাইজের প্রতি কেজি ৯০০ টাকায়, চিংড়ি প্রতি কেজি ৮০০ টাকায়, কাতলা মাছ প্রতি কেজি ৩২০ থেকে ৩৫০ টাকায়, বোয়াল প্রতি কেজি ৭০০ থেকে ৮০০ টাকায় ও টেংরা মাছ ছোট সাইজের প্রতি কেজি ৫০০ থেকে ৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।