কম দামে তেল চাই, পাকিস্তানের আরজি কানেই তুলল না রাশিয়া

আপডেট: ডিসেম্বর ২, ২০২২, ৪:৫৯ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


ইউক্রেন যুদ্ধের আবহে রাশিয়া থেকে কম দামে জ্বালানি তেল কিনছে ভারত। আমেরিকা ও পশ্চিমের দেশগুলির আর্থিক নিষেধাজ্ঞার মার এড়াতে দিল্লির ‘বন্ধুত্বে’ ভরসা রাখছে মস্কো। কিন্তু যুদ্ধ পরিস্থিতির সুযোগে রাশিয়া থেকে অত্যন্ত কম মূল্যে তেল কিনতে চেয়েছিল সুযোগসন্ধানী পাকিস্তান। তবে ইসলামাবাদের কোন কথাতেই কর্ণপাত করেনি পুতিন প্রশাসন।

‘দ্য নিউজ ইন্টারনেশনাল’-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রুশ জ্বালানি তেলে ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ ছাড় চেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু সেই আরজি খারিজ করে দিয়েছে রাশিয়া। বুধবার মস্কোয় রুশ প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করেন পাকিস্তানের পেট্রোলিয়াম প্রতিমন্ত্রী মুসাদিক মালিক-সহ শাহবাজ শরিফ প্রশাসনের শীর্ষ আমলারা।

আলোচনা শেষে পুতিন সরকারের তরফে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এমন ছাড়ে তেল বিক্রি সম্ভব নয়। তবে ভবিষ্যতে কোনও সম্ভাবনা তৈরি হলে জানিয়ে দেওয়া হবে। পাক সংবাদমাধ্যম ‘জিও নিউজ’ সূত্রে খবর, নভেম্বরের ২৯ তারিখ তিনদিনের সফরে মস্কো পৌঁছয় পাকিস্তানের প্রতিনিধি দল।

বিশ্লেষকদের মতে, এই মুহূর্তে ভারত ও চিনের মতো বড় এবং বিশ্বস্ত দেশগুলিকে সস্তায় তেল বিক্রি করছে রাশিয়া। এই দুই দেশের সঙ্গে মস্কোর সম্পর্ক বহুদিনের। কিন্তু সুযোগসন্ধানী পাকিস্তানকে বিশ্বাস করে না পুতিন প্রশাসন। সূত্রের খবর, সস্তায় তেল কেনার আগে ‘পাকিস্তান স্ট্রিম’ গ্যাস পাইপলাইন সম্পুর্ণ করার দাবি জানিয়েছে মস্কো। পাকিস্তানের করাচি বন্দর থেকা পাঞ্জাব প্রদেশ পর্যন্ত এই পাইপলাইনটি তৈরি করার কথা ছিল রাশিয়ার কিন্তু সেই কাজ থমকে রয়েছে।

উল্লেখ্য, রুশ তেল কেনা নিয়ে বারবার পশ্চিমি দেশগুলির সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে ভারতকে। সেই প্রসঙ্গে তোপ দেগেছিলেন ভারতে নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত ডেনিস অলিপাভ। তিনি বলেন, রাশিয়া থেকে ভারত তেল কিনছে বলে নিন্দা করছে পশ্চিমি দেশগুলি। অন্যদিকে তারা নিজেরাও রুশ শক্তিসম্পদ কিনছে। গোটা ঘটনায় বোঝা যায়, নিজেরা নিয়ম তৈরি করলেও পালন করছে না ইউরোপীয় দেশগুলি।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ