করোনাভাইরাস: বেকার হতে পারে ‘আড়াই কোটি’ মানুষ

আপডেট: মার্চ ২০, ২০২০, ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


মহামারি রূপে ছড়িয়ে পড়া নতুন করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকটের কারণে প্রায় আড়াই কোটি মানুষ চাকরি হারাতে পারে বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও)।
জাতিসংঘ সংস্থাটির এই আশঙ্কামূলক মূল্যায়নটির কথা বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
আইএলও বলছে, ২০০৮ সালের বৈশ্বিক মন্দার সময়কার মতো বিশ্বজুড়ের সমন্বিত উদ্যোগ নেয়া হলে সম্ভাব্য বেকারত্বের হার অনেক কম হতে পারে।
সংস্থাটির মহাপরিচালক গাই রাইডার বলেন, শুধু স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের নয়- এটা বৈশ্বিক শ্রমবাজার ও অর্থনীতিরও সংকট; মানুষের ওপর এর ভয়ানক প্রভাব আছে।
“২০০৮ সালের সংকট উত্তরণে সারা বিশ্ব সমন্বিতভাবে লড়াই করেছিল। এর ফলে ভয়াবহ পরিস্থিতি সামাল দেয়া সম্ভব হয়েছিল। বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিশ্ব নেতৃত্বের পক্ষ থেকে তেমন পদক্ষেপ দরকার।
বৈশ্বিক দুর্দশা থেকে রক্ষায় জরুরি ভিত্তিতে বৃহদাকারে সমন্বিত উদ্যোগের পাশাপাশি আর্থিক প্রণোদনা এবং আয় ও চাকরির ক্ষেত্রে সহযোগিতা দেয়ারও তাগিদ দিয়েছে বিশ্ব সংস্থাটি।
এসব উদ্যোগের মধ্যে সামাজিক সুরক্ষা, স্বল্পমেয়াদি কাজের পরিধি বাড়ানো এবং ছোট ও মাঝারি আকারের শিল্পের উপর আরোপিত করভার কমানোর কথা বলা হয়েছে।
আইএলও বলছে, নতুন করোনাভাইরাসের প্রভাব খুব স্বল্পমাত্রায় হলেও অন্তত ৮০ লাখ মানুষ চাকরি হারাতে পারেন। আর খুব বেশি মাত্রায় প্রভাব পড়লে বেকার হয়ে পড়া মানুষের সংখ্যা দাঁড়াবে ২ কোটি ৪৭ লাখ।
২০০৮-০৯ সালে বৈশ্বিক আর্থিক সংকটের সময় ২ কোটি ২০ লাখ মানুষ চাকরি হারিয়েছিলেন।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ