করোনার প্রভাবে রাজশাহী বিভাগীয় শ্রম আদালতে নতুন মামলা রেকর্ড হয়নি

আপডেট: জুলাই ২০, ২০২০, ১০:৩৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


করোনা ভাইরাসের প্রার্দুভাবের কারণে করোনাকালীন রাজশাহী বিভাগীয় শ্রম আদালতে নতুন কোনো মামলা রেকর্ড হয়নি। তবে এরমধ্যে শুধুমাত্র একটি মামলার জামিন হয়েছে। রোববার বেলা ১১টার দিকে শ্রম আদালতে সরেজমিনে গেলে এমন তথ্য দেন আদালত কর্তৃপক্ষ।
দেখা যায়, আদালত প্রাঙ্গণে কোনো আইনজীবী, মক্কেল এর পদচারণা নেই। আদালতের অফিস কক্ষে রেজিস্ট্রার তুষার কান্তি রায়, পেশকার হোসেন শহীদ ও অন্যান্য কর্মচারীদের শুধু দেখা যায়।
জানা যায়, ৩১ মে থেকে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে নিজ নিজ জেলার আদালতের কার্যক্রম চালু হয়। এরমধ্যেও দেশের সব আদালতে ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে কিছু কিছু মামলার কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে।
এছাড়াও রাজশাহী জেলা ও দায়রা জজ, মহানগর দায়রা জজ, নারী ও শিশু আদালত, দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল, জননিরাপত্তা আদালত, বিভাগীয় কমিশনার আদালতসহ জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের সব আদালতে মামলার কার্যক্রম সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর চালু হয়েছে। এরফলে এসব আদালতের জজ, আইনজীবী, আসামী ও মক্কেলদের প্রয়োজনীয় কাজ স্বতঃস্ফুর্তভাবে চলতে দেখা গেছে।
কিন্তু রাজশাহী বিভাগীয় শ্রম আদালতে আইনজীবী ও মক্কেলদের পদাচারণা স্থবির দেখা যায়।
রাজশাহী বিভাগীয় শ্রম আদালতের রেজিস্ট্রার তুষার ক্রান্তি রায় বলেন, শ্রম আদালতের অফিস সবসময় খোলা, ছুটির দিন ব্যতিত। কোনো সমস্যা নিয়ে কোনো আইনজীবী বা কেউ উপকারভোগী আসলে সার্বিক সহযোগিতা করা হচ্ছে।
তবে এখন পর্যন্ত কোনো আইনজীবী নতুন করে মামলা না করায় নতুন মামলা রেকর্ড হয়নি। আইনজীবীরা আদালতে নতুন মামলা নিয়ে আসলে তা আমরা রেকর্ড করবো। আইনজীবীরা আদালতে না আসার জন্য আদালত প্রাঙ্গণ স্থবির মনে হচ্ছে বলে তিনি জানান।
এদিকে রাজশাহী বিভাগীয় শ্রম আদালতের সহকারী পরিচালক মিজানুর রহমান করোনায় আক্রান্ত হয়ে নিজ বাড়িতে চিকিৎসাধীন আছেন। মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, শ্রম আদালতের সকল কার্যক্রম চলছে।
এসময় রাজশাহী বিভাগীয় শ্রম আদালতের চেয়ারম্যান গোলক চন্দ্র বিশ্বাস আদালতে না থাকায় আদালতের কার্যক্রম নিয়ে তাঁর সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ