করোনার সঙ্গে লড়াই টেন্ডুলকারের চোখে টেস্ট ক্রিকেট

আপডেট: মার্চ ২১, ২০২০, ১:১৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ক্রিকেটের মানুষ শচীন টেন্ডুলকারের জীবন ও ভাবনা ক্রিকেটময়। তাই প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সঙ্গে সারা বিশ্বের যে লড়াই চলছে, সেটিকে তিনি তুলনা করেছেন টেস্ট ম্যাচের সঙ্গে।
টেস্ট ম্যাচে জিততে গেলে প্রথমে লাগে ধৈর্য, তারপর দলীয় প্রচেষ্টা। ‘আমাদের দুর্দান্ত লড়াই করতে হবে’ সবার উদ্দেশে এই সতর্কবাণী উচ্চারণ করে টেন্ডুলকার বলেছেন, ‘বিশ্ব যখন কভিড-১৯ মহামারির সঙ্গে লড়ছে, এটাই সম্ভবত সঠিক সময় যে আমরা ক্রিকেটের সবচেয়ে পুরোনো ও রাজকীয় সংস্করণের কাছ থেকে শিক্ষা নিতে পারি।’
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সর্বোচ্চ রান ও শত সেঞ্চুরির মালিক এমন আহ্বান জানিয়েছেন ভারতীয় ইংরেজি দৈনিক টাইম অব ইন্ডিয়ায় লেখা কলামে। টেন্ডুলকারের দৃষ্টিতে এই ভাইরাস যে প্রভাব ফেলেছে সেটি আমাদের সবার ধারণার বাইরে ছিল, তবে পাঁচদিনের টেস্ট ম্যাচের মতো কৌশল নিয়ে এগোলে অবশ্যই এটিকে পরাস্ত করা যাবে।
টেন্ডুলকার লিখেছেন, ‘টেস্ট ক্রিকেট আপনি যদি শ্রদ্ধার সঙ্গে খেলেন সেটির এমন পুরস্কার পান, যা আপনি ভাবতেও পারেন না। আপনি যখন পিচ ও কন্ডিশন বা বোলারদের বুঝতে পারেন না, তখন প্রতিরোধই হয়ে ওঠে আক্রমণের সেরা রূপ। ভালোভাবে প্রতিরোধে ঘুরে দাঁড়াতে ধৈর্যই এখন দরকার আমাদের।’
ভারতে এ পর্যন্ত ১৬৯ জন করোনা-আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃতের সংখ্যা তিনজন। যদিও সারা বিশ্বে মারা গেছে ৯০০০ মানুষ। কিন্তু ভারতে দ্রুতগতিতে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে।
ভারতের হয়ে ২০০ টেস্ট খেলে ৫১ সেঞ্চুরিতে ১৫ হাজার ৯২১ রানের মালিক বলছেন কভিড-১৯ ভাইরাস প্রতিরোধে সব দেশকে একযোগে কাজ করতে হবে। টেন্ডুলকার লিখেছেন, ‘ ক্রিকেটকে আমরা একটি রূপক হিসেবে নিতে পারি। সংক্ষিপ্ত সংস্করণের ক্রিকেটে ব্যক্তিগত নৈপুণ্য হয়তো দলকে সাহায্য করতে পারে, কিন্তু টেস্ট ক্রিকেটে দরকার পার্টনারশিপ ও দল হিসেবে খেলা।’
টেস্ট ক্রিকেটে সব সময়ই ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ থাকে, এটি জানিয়ে ৪৬ বছর বয়সী ক্রিকেট কিংবদন্তি বলেছেন, ‘ আপনার প্রথম ইনিংসটা যদি ভালো না যায়, এখানে দ্বিতীয় ইনিংসটা পাচ্ছেন। ভিন্ন ভিন্ন দেশ করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ভিন্ন ভিন্ন পর্যায়ে আছে। তবে সব দেশকে একটি দলের অংশ হয়ে লড়তে হবে।’ টেন্ডুলকার আশাবাদী যে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে বিশ্ববাসী জয়ী হবেই, ‘এই লড়াইটা লড়তে হবে সেসন ধরে ধরে এবং শেষটায় আমরাই বিজয়ী হবো।’ তথ্যসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ