করোনায় বাঘায় হাট-বাজার অফিস এনজিওর কিস্তি বন্ধ

আপডেট: মার্চ ২৪, ২০২০, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


করোনাভাইরাসের কারণে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সব হাট-বাজার অফিস এনজিওর কিস্তি বন্ধের ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা হাট বাজার অফিস এনজিওর কিস্তি আদায় বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত দেন।
উপজেলায় এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাস আক্রান্ত কোনো রোগির সন্ধান মিলেনি। ইতোমধ্যে বাঘা থেকে ঢাকাসহ দূরপাল্লার সব বাস চলাচল বন্ধ হয়েছে। এদিকে করোনা আতঙ্কে শাকসবজি ও কাঁচামালের সরবরাহ কমতে শুরু করেছে। যানবাহন সংকটের কারণে শাকসবজি ও মাছের চালান বন্ধের উপক্রম হয়েছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও সবজি চাষীরা। এদিকে নিত্য প্রয়োজন চালসহ বিভিন্ন দ্রব্যের দাম বৃদ্ধিতে মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে। ৫০ কেজি চালের প্রতিবস্তা ৩০০-৪০০ টাকা সপ্তাহের মধ্যে বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিকে বিভিন্ন দেশে থেকে নিজ বাড়িতে ফিরেছে ১৩ জন। তারা হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন।
করোনাভাইরাস প্রতিরোধে উপজেলার সকল এনজিওর কিস্তি আদায় স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজার সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় এনজিও প্রধান, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর অবস্থা বিবেচনা করে কিস্তি আদায় স্থগিত অনুরোধ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা বলেন, সম্প্রতি যারা বিদেশ থেকে এসেছেন এবং তাদের সংস্পর্শে যারা রয়েছেন, তাদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণ, জনসমাগম, সভা, মিছিল, মিটিং, সেমিনার, রাজনৈতিক ও সামাজিক অনুষ্ঠান বন্ধ রাখা, প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন মোড়, চায়ের স্টলে আড্ডা, হাট-বাজার, পশুহাট, বিনোদন কেন্দ্রে ঘোরাঘুরি ও কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠান আয়োজন থেকে বিরত রাখাসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বৃদ্ধি রোধে বাজার মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তবে ওষুধ ও খাদ্যের দোকান খোলা থাকবে।