করোনা রোধে সরকারের ৬ নির্দেশনা

আপডেট: জানুয়ারি ২১, ২০২২, ৫:৪৫ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক :


করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে নতুন ছয়টি নির্দেশনা জারি করেছে সরকার। শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) এসব বিধি-নিষেধ জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।
নির্দেশনাগুলো হলো-

১. ২১ জানুয়ারি থেকে ৬ ফেব্রæয়ারি পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ ও সমমানের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে।
২. বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নিজ নিজ ক্ষেত্রে অনুরূপ ব্যবস্থা নেবে।
৩. সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় ও রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে ১০০ জনের বেশি অংশ নেওয়া যাবে না। এসব অনুষ্ঠানে যারা যোগ দেবেন, তাদের অবশ্যই টিকা সনদ বা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর সার্টিফিকেট আনতে হবে।

৪. সরকারি-বেসরকারি অফিস, শিল্পকারখানার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবশ্যই টিকা সনদ থাকতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে দায়িত্ব বহন করবে

৫. বাজার, শপিং মল, মসজিদ, বাসস্ট্যান্ড, লঞ্চ ঘাট, রেলস্টেশনসহ সব ধরনের জনসমাবেশে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে।

৬. বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মনিটর করবে।
২০২০ সালের ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনার সংক্রমণ শনাক্তের ঘোষণা দেয় সরকার। এর পর প্রায় দুই বছর ধরে চলছে এ মহামারি।

করোনার সংক্রমণ কয়েক দফায় ওঠানামা করেছে। এর মধ্যে পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ আকার ধারণ করেছিল গত বছরের জুন-জুলাইয়ে।

দেশে গত বছরের আগস্টে সংক্রমণ কমতে শুরু করে। একপর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণেও চলে আসে। তবে গত বছরের শেষদিকে আবার সংক্রমণে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা দেয়। গত কয়েক দিনে দ্রুতই পরিস্থিতির অবনতি হতে থাকে। প্রতি তিন-চার দিনের ব্যবধানে নতুন রোগী দ্বিগুণ হচ্ছে।

৬ জানুয়ারি দৈনিক শনাক্ত হাজার ছাড়ায়। তার চার দিনের মাথায় ১০ জানুয়ারি শনাক্ত ২ হাজার ছাড়িয়ে যায়। ১৬ জানুয়ারি দৈনিক শনাক্ত ৫ হাজার ছাড়িয়েছিল। এর চার দিনের ব্যবধানে বৃহস্পতিবার দৈনিক শনাক্ত দ্বিগুণ হয়। ফলে, সরকার করোনার বিস্তার রোধে নতুন করে বিধি-নিষেধ জারি করে।
তথ্যসূত্র: রাইহিংবিডি