করোনা : সারা দেশে নিষেধাজ্ঞা নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়ন হোক

আপডেট: জুন ৩০, ২০২২, ১২:৪৮ পূর্বাহ্ণ

দেশে করোনাভাইরাসের চতুর্থ ঢেউ হানা দিয়েছে। টানা চারদিন করোনায় মৃত্যুও ঘটনা নতুন করে ঝুঁকির সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে সরকার নড়েচড়ে বসেছে। করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ মঙ্গলবার (২৮ জুন) এক আদেশে ছয় দফা নির্দেশনা দিয়েছে। নির্দেশনা মোতাবেক দোকান, শপিংমল, বাজার, ক্রেতা-বিক্রেতা, হোটেল রেস্টুরেন্টে সবাইকে বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরিধান করতে হবে। এর অন্যথা হলে সংশ্রিষ্টদের আইনানুগ শাস্তির সম্মুখিন হতে হবে। এ ব্যাপারে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করতে সব গণমাধ্যমে অনুরোধ জানাতে বলা হয়েছে।
ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ও পৃথকভাবে নির্দেশনা জারি করেছে। করোনা ভাইরাসের ঊর্ধ্বগতির কারণে মসজিদে শিশু, বয়বৃদ্ধ, অসুস্থ ব্যক্তি এবং অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিতদের জামাতে উপস্থিত না হওয়ার জন্য বলা হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার (২৮ জুন) সাত দফা নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মসজিদে মাস্ক পরিধান করা, স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে চলা এবং শারীরিক দূরত্ব মানতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
বুধবার পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে কারো মৃত্যু হয়নি। এ পর্যন্ত দেশে করোনায় মোট মৃত্যু হয়েছে ২৯ হাজার ১৪৫ জনের।
এদিন নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ২৪১ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯ লাখ ৭১ হাজার ৬০২ জন। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ২৩ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৬ দশমিক ৭৩ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৮ শতাংশ।
বৈশ্বিক অতিমারি করোনার আরেকটা ঢেউ এসেছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এটি করোনার চতুর্থ ঢেউ বলে জানান তিনি। বুধবার একাদশ জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশনে ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনার সমাপনী বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
অতএব বিষয়টিকে কোনোভাবেই অবহেলা করার সুযোগ নেই। কেননা সংক্রমণের গতি বাড়তেই আছে। নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। এখন এই নিষেধাজ্ঞা মাঠ পর্যায়ে বাস্তবায়নের উদ্যোগ অবিলম্বে নিতে হবে। পরিস্থিতি এখনো নাগালের মধ্যেই আছে। যে কোনো ধরনের শিথিলতা ঝুঁকির মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। আর কদিন বাদেই ইদুল আজহার উৎসব। এই উৎসবে ঘরমুখো মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা যাবে- এই অভিযাত্রা কতটুকু স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে সম্ভব করা যাবে সে ব্যাপারে এখনই পরিকল্পনা কৌশল গ্রহণ করতে হবে। বিষয়টি অতি গুরুত্বপূর্ণ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ