বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

কর্মক্ষেত্রে আস্থা অর্জনের উপায়

আপডেট: February 9, 2020, 12:08 am

সোনার দেশ ডেস্ক


কর্মক্ষেত্রে সাফল্য পেতে হলে আপনাকে আস্থা অর্জন করতে হবে। কেননা আস্থা এমন একটি গুণ যা আপনার প্রতি অন্যদের শ্রদ্ধা ও আনুগত্য বাড়িয়ে দেবে। এছাড়া এর মাধ্যমে আপনি সহায়ক ও নিরাপদ কর্ম পরিবেশ পাবেন।
উল্টোদিকে কর্মক্ষেত্রে যদি আপনার উপর অনাস্থা তৈরি হয়, তাহলে প্রতিষ্ঠানে আপনার কর্মস্পৃহা ধীরে ধীরে নষ্ট হয়ে যেতে পারে। কর্মক্ষেত্রে আস্থা অর্জনের ছয়টি কৌশল জেনে নিন।
সৎ হোন: কর্মক্ষেত্রে তো বটেই, জীবনের যেকোনো পর্যায়ে আস্থা অর্জন করতে হলে সৎ হতে হবে। তাই-
* সত্য কথা বলুন। এমনকি ছোট ছোট মিথ্যাকে মিথ্যা হিসেবে উপেক্ষা করুন।
* ভালো তথ্যগুলো সবার সাথে শেয়ার করুন।
* অফিসের হিসাব থেকে অথবা অফিস থেকে কোনো কিছু চুরি করবেন না অথবা না বলে নেবেন না।
বিবেচনাবোধের পরিচয় দিন: কোন তথ্য অন্যদের সাথে শেয়ার করবেন, কখন শেয়ার করবেন বা কখন করবেন না- এসব বিষয়ে বিবেচনাবোধের পরিচয় দিন। এক্ষেত্রে-
* কর্মকর্তাদের ব্যক্তিগত অথবা কোম্পানির গুরুত্বপূর্ণ তথ্য অন্যের সাথে বাইরে অথবা অফিসে বলার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করুন।
* কর্মক্ষেত্রে সহকর্মীদের সাথে অতিরঞ্জিত ও অপ্রয়োজনীয় তথ্য আদান-প্রদানের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকুন।
* কোম্পানির স্বার্থ জড়িত না থাকলে কারো সাথে গোপন আলোচনায় জড়াবেন না।
সঙ্গতিপূর্ণ আচরণ করুন: কথা ও কাজে সঙ্গতি রাখুন। অফিসে প্রতিদিন, প্রতি ঘণ্টা বিশ্বস্ত থাকতে হবে। সে কারণে-
* প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে অফিসে উপস্থিত হোন।
* গুরুত্বপূর্ণ দিন ও মিটিংয়ে অফিসে অবশ্যই উপস্থিত থাকার চেষ্টা করুন। কোম্পানির নির্দিষ্ট লক্ষ্য অর্জনে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করে যান।
* যা করবেন বলে বসকে জানিয়েছেন তা সম্পন্ন করুন।
দেহভাষায় সতর্ক থাকুন: কারো সাথে কথা না বলে অঙ্গ-ভঙ্গির মাধ্যমে ভাব প্রকাশ করাকেই দেহভাষা বলে। কর্মক্ষেত্রে এই দেহভাষা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কোনো কোনো বিশেষজ্ঞের মতে, পারস্পরিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে দেহভাষার ভূমিকা রয়েছে ৫০ শতাংশেরও বেশি। আর তাই দেহভাষার মাধ্যমে আস্থা অর্জন করতে হলে:
* কথা বলার সময় সহকর্মী ও বসের চোখের দিকে সরাসরি কোমল দৃষ্টিতে তাকান।
* বস কথা বলার সময় পকেটে হাত দিয়ে বা বুকে দু’হাত ক্রস করে দাঁড়াবেন না। স্বাভাবিক থাকুন।
* ডেস্কে বসে থাকা অবস্থায় সহকর্মীর সাথে কথা বলার সময় পায়ের উপর পা তুলে নাড়াবেন না। এটি দেখতে যেমন খারাপ লাগে, তেমনি তাতে অহংবোধও প্রকাশ পায়।
সবার কথা বিবেচনা করুন: কর্মক্ষেত্রে আপনি যদি নিজের কথাই ভাবেন তাহলে সহকর্মীদের আস্থা অর্জন করতে পারবেন না। আপনার স্বার্থ রক্ষা করতে গিয়ে যদি আরেকজন ক্ষতিগ্রস্ত হন, তাহলে কর্মক্ষেত্রসহ কোথাও আস্থা অর্জন করতে পারবেন না। এক্ষেত্রে-
* শুধু নিজের কথা ভাববেন না, আন্তরিকভাবে অন্য সহকর্মীদের কথা ভাবুন এবং সার্বিক লাভের কথা বিবেচনা করুন।
* খোলা মনে আলোচনা করে পারস্পরিক সমঝোতার বিষয়টি প্রতিষ্ঠা করুন।
* ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে অন্য সহকর্মীর ভুলগুলো তাকে জানান এবং সহকর্মীদের গঠনমূলক সমালোচনা নিজেও গ্রহণ করুন।
বসদের করণীয়: কর্মক্ষেত্রে আস্থাবান বস বা নেতার প্রয়োজন খুব। নের্তৃত্ব গুণের পাশাপাশি বসদের কিছু বিষয় বিবেচনায় রাখতে হবে:
* কোম্পানির স্বার্থে জটিল বিষয়গুলোর প্রতি নজর দিন।
* মুক্ত মনে সহকর্মীদের আইডিয়াগুলো শুনুন ও বিবেচনা করুন।
* ব্যক্তির উপর নজর না দিয়ে কোম্পানির সমস্যা ও সমাধানগুলো নিয়ে ভাবুন।
* জবাবদিহিতার মাধ্যমে দৃষ্টান্ত গড়ে তুলুন।