কলকাতার আকাশে টাকার বৃষ্টি! নোট কুড়োতে হুড়োহুড়ি স্থানীয়দের

আপডেট: নভেম্বর ২১, ২০১৯, ১২:৫৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


কলকাতার আকাশে টাকার বৃষ্টি! পাঁচ-দশ টাকা নয়, একেবারে ৫০০, ২০০০ টাকার কড়কড়ে নোটের বৃষ্টি। না, সত্যজিৎ রায়ের ‘নায়ক’ ছবির দৃশ্য নয়। দিনদুপুরে খাস কলকাতায় এই ঘটনায় ব্যাপক শোরগোল। বুধবার দুপুরে মধ্য কলকাতার বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটের একটি বহুতল থেকে এমনই টাকার বৃষ্টি। দেখে থমকে গেলেন পথচারীরা। তারপর টাকা কুড়োতে হুড়োহুড়ি পড়ে যায় সাধারণের মধ্যে। প্রথমে ৫০০-২০০০ টাকার নোট, তারপর একের পর এক টাকার বান্ডিল বহুতলের জানলা থেকে নিচে পড়তে শুরু করে। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।
জানা গিয়েছে, বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটের এম কে পয়েন্ট বিল্ডিংয়ের চারতলার একটি অফিস থেকে টাকার বান্ডিল ফেলা হয়েছে নিচে। কিন্তু টাকার বান্ডিল কেন ফেলা হল? তা নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দা বা ওই বহুতলের কারও কাছে কোনও উত্তর নেই। সূত্রের খবর, ছতলার ওই অফিসে রাজস্ব দপ্তরের আধিকারিকরা হানা দেন। অনুমান, তারপরই জানলা দিয়ে টাকার বান্ডিল ফেলা হয় নিচে। কিন্তু সেটি কোন সংস্থার অফিস, সেখানে এত টাকা এল কোথা থেকে তার কোনও সদুত্তর পাওয়া যায়নি।
টাকা ওড়ার খবর চাউর হতেই সংবাদমাধ্যম পৌঁছে যায় বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটের ওই বহুতলের সামনে। কিন্তু কেন টাকা নিচে ফেলা হল, কারাই বা ফেলল তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। রাজস্ব দপ্তরের হানার তত্ত্বের পাশাপাশি আরও একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে আসছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের ধারণা, ওই অফিসে কোনও বেআইনি কাজকর্ম হত। এত পরিমাণ নগদ টাকা সেই কারণে মজুত ছিল। যদিও অফিসের কর্মী বা বহুতলের অন্যান্য অফিসের কেউই এ বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ।
তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা