কলেজ অধ্যক্ষকে পিটিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের দম্ভোক্তি

আপডেট: মার্চ ২৮, ২০১৭, ১:২০ পূর্বাহ্ণ

তানোর প্রতিনিধি


রাজশাহীর তানোরে শিক্ষার্থীবরণ, বিদায় ও বিজয় দিবসের আলোচনাসভায় ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রধান অতিথি না করার কারণে সভা প- করে কলেজ অধ্যক্ষকে চড়-থাপ্পড় মেরে স্যান্ডেল পেটা করেছেন চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক। গত রোববার বেলা ১২টার দিকে সভা চলাকালীন উপজেলার সরনজাই ডিগ্রি কলেজ চত্বরে এ ন্যক্কারজনক এ ঘটনাটি ঘটে। এঘটনায় কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভ ও অসস্তোষ বিরাজ করছে।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সরনজাই ডিগ্রি কলেজে শিক্ষার্থীবরণ, বিদায় ও বিজয় দিবসের পূর্বঘোষিত আলোচনা অনুষ্ঠান গত রোববার বেলা ১২টার দিকে শুরু করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট একরামুল হক সভাপতিত্ব করেন। এসময় সরনজাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক তার লোকজন নিয়ে সভাস্থলে হামলা করে প্যান্ডেলের চেয়ার ভাঙচুর করে কলেজ অধ্যক্ষ ইমারত আলীকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন।
কলেজ অধ্যক্ষ ইমারত আলী এমন আচরণের প্রতিবাদ করায় তাকে মঞ্চ থেকে শার্টের কলার ধরে নামিয়ে চড়-থাপ্পড় মেরে মাটিতে ফেলে স্যান্ডেল দিয়ে পেটান চেয়ারম্যান। সঙ্গে থাকা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাহাদাৎ হোসেনসহ চেয়ারম্যানের লোকজন মঞ্চ ভেঙে তা-ব চালায়। এ ধরনের পরিস্থিতি লক্ষ্য করে কলেজের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা উত্তেজিত চেয়ারম্যান ও তার লোকজনকে ধরে সামলানোর চেষ্টা করে। কিন্তু চেয়ারম্যান অধ্যক্ষকে লাঠি দিয়ে পেটানোর জন্য প্যান্ডেলের বাঁশ ভেঙে ফেলে। পরে শিক্ষার্থীরা চেয়ারম্যানের ওপর চড়াও হলে তার লোকজন নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে সরে যান চেয়ারম্যান।
কলেজ অধ্যক্ষ ইমারত আলী জানান, অ্যাডভোকেট একরামুল হক সম্মানিত মানুষ। একারণে সাংসদ তাকে কলেজে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি করেছেন। তার নির্দেশে তিনি সভা ও সেমিনারে অতিথি আমন্ত্রণ করে থাকেন। চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত হয়ে তার ওপর হামলা করে তাকে মারধর করেছেন। তিনি বিষয়টি নিয়ে সাংসদের সঙ্গে আলোচনা করে আইনগত পদক্ষেপ নেবেন বলে জানান।
তবে এব্যাপারে উপজেলার সরনজাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বলেছেন, তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান। একারণে পুরো ইউনিয়নবাসী তাকে সম্মান করেন। কিন্তু অধ্যক্ষ তাকে এড়িয়ে চলেন। অধ্যক্ষের চলার অনেক দোষ রয়েছে বলে তিনি তাকে উচিত শিক্ষা দিয়েছেন বলে মন্তব্য করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ