কাওরান বাজারে ২০০০ লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার

আপডেট: মে ১, ২০২২, ৮:৫৯ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:


গোডাউনের সামনে সিগারেটের প্যাকেট রেখে ভেতরে মজুত করে রাখা ছিল সয়াবিন তেল। এভাবেই বিক্রি না করে অবৈধভাবে মজুত করে বাড়ানো হচ্ছে ভোজ্যতেলের দাম। রবিবার (১ মে) রাজধানীর কাওরান বাজারে অভিযান চালিয়ে এমন প্রমাণ পায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। এ সময় বিসমিল্লাহ স্টোরের গোডাউন থেকে দুই হাজার লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার করা হয়।
অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, সহকারী পরিচালক ফাহমিনা আক্তার ও মো. মাগফুর রহমান।
অবৈধভাবে ভোজ্যতেল মজুতের দায়ে বিসমিল্লাহ স্টোরকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া বেশি দামে তেল বিক্রিসহ ভোক্তার সঙ্গে প্রতারণার দায়ে আরও দুই প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়।
মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, আমরা খোঁজ-খবর নিয়ে জানলাম, ভোজ্যতেলের মিলগুলো চাহিদা অনুযায়ী তেল সরবরাহ করছে। তাহলে তেল যাচ্ছে কোথায়। পরে কয়েকজন ব্যবসায়ীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার সকালে কাওরান বাজারের দোতলা মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করি। এ সময় দেখি, বিসমিল্লাহ স্টোর নামের প্রতিষ্ঠানটির গোডাউনের সামনে সিগারেটের প্যাকেট রেখে পেছনে তেল মজুত করে রাখা হয়েছে। অথচ তারা ক্রেতাদের বলছে, তাদের গোডাউনে তেল নেই, সরবরাহ কম। এই বলে তারা অবৈধভাবে মজুত করছে। এই অপরাধে প্রতিষ্ঠানটিকে আমরা দুই লাখ টাকা জরিমানা করেছি।’
তিনি জানান, এছাড়া সিদ্দিক এন্টারপ্রাইজকে বেশি দামে তেল বিক্রি করায় ১০ হাজার টাকা এবং বেশি দামে মুরগি বিক্রি করায় আরেকটি দোকানকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ