কাঙ্খিত সাড়া না মেলায় বন্ধ হলো ‘ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন’

আপডেট: জুন ২৬, ২০২২, ১২:১২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


উত্তরাঞ্চল থেকে রাজধানী ঢাকায় স্বল্প খরচে আম পরিবহণে চালু হওয়া ‘ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন’ বন্ধ হয়েছে। চলতি মৌসুমে মাত্র ১১ দিন চলার পর কাঙ্খিত সাড়া না মেলায় বন্ধ হলো ট্রেনটি। গত ১৩ জুন থেকে চালু হওয়া ট্রেনটিতে এ অঞ্চলের ১৩ স্টেশন থেকে আম ঢাকার উদ্দ্যেশে ছেড়ে যেত। সর্বোশেষ ২৩ জুন আম পরিবহণ করে ট্রেনটি। এরপর চলতি মৌসুমের জন্য ট্রেনটিকে বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

আম পরিবহণে ব্যবসায়ীদের অনাগ্রহ ও আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহার প্রস্তুতি নিতে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন বন্ধ করা হয় বলে জানিয়েছেন, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের তথ্যমতে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রহনপুর, নাচোল, আমনুরা বাইপাস, নেজামপুর, কাঁকনহাট, রাজশাহী, সারদাহ রোড, আড়ানী, আব্দুলপুর, আজিমনগর ও লোকমানপুর থেকে আম ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনে পরিবহণ করা হতো। এ অঞ্চলের ১৩ স্টেশনের মধ্যে আড়ানি থেকে সর্বোচ্চ আম পরিবহণ হয়েছে।

১৩ জুন থেকে ২০ জুন পর্যন্ত ট্রেনটিতে মোট ১ লক্ষ ৭৮ হাজার ৭৭৮ কেজি আম ঢাকায় নেয়া হয়েছে। যা থেকে রেলওয়ের আয় হয়েছে ২ লক্ষ ১২ হাজার ১৭৮ টাকা। এরমধ্যে রহনপুর স্টেশন থেকে ২১ হাজার ৭৭৪ কেজি আম পরিবহণ করে আয় হয়েছে ২৭ হাজার ৪৪৪ টাকা, নাচোল থেকে ৪ হাজার ১৮৫ কেজিতে ৫ হাজার ৫৭৫ টাকা, নেজামপুর থেকে ২ হাজার ১৮০ কেজি আমে ৩ হাজার ৭৪ টাকা, আমনুরা জং থেকে ১ হাজার ৮৮০ কেজি আমে ২ হাজার ৪৬৭ টাকা, আমনুরা বাইপাস থেকে ৫ হাজার ২৭২ কেজিতে ৬ হাজার ৯৭৮ টাকা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ৩৪ হাজার ৫৯৪ কেজিতে ৪৫ হাজার ৯০৭ টাকা, কাঁকনহাট থেকে ৩ হাজার ৫৯০ কেজিতে ৪ হাজার ৮১৫ টাকা, রাজশাহী থেকে ২৭ হাজার ১৮৭ কেজিতে ৩৬ হাজার ১৯৭ টাকা, সারদাহ থেকে ১২ হাজার ১৭৮ কেজিতে ১৩ হাজার ৫২৮ টাকা, আড়ানী থেকে ৬১ হাজার ৪১০ কেজিতে ৬২ হাজার ৬০৪ টাকা, আব্দুলপুরে ১৪ হাজার ৬৫০ কেজিতে ১৬ হাজার ৬৩৪ টাকা, আজিমনগরে ৮৭০ কেজিতে ১ হাজার ৯০ টাকা এবং লোকমানপুর থেকে ১২ হাজার ১২১ কেজিতে রেলওয়ের আয় হয়েছে ১২ হাজার ৩৪৭ টাকা।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে প্রতি কেজি আম পরিবহণে ১ টাকা ৩১ পয়সা ও রাজশাহী থেকে ১ টাকা ১৭ পয়সা হারে বিশেষায়িত এই ট্রেনে আম পরিবহণের সুযোগ পেয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার বলেন, চাষি ও ব্যবসায়ীদের ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনে আম পরিবহণে অনাগ্রসহ সামনের ঈদ যাত্রা বিবেচনা করে ট্রেনটি বন্ধ করা হয়েছে। প্রতিদিন পাঁচটি বগিতে আম পরিবহণ করা হতো। স্বল্প খরচে আম পরিবহণের সুযোগ থাকলেও রেলওয়ের প্রত্যাশা অনুযায়ী ব্যবসায়ীরা আগ্রহ দেখান নি।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে প্রথম ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালু করেছিল পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে। ২০২১ সালে করোনাকালীন প্রায় দেড় মাস চলেছিল ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ