কানসাটে তীব্র যানজট : সংক্রমণের আশঙ্কায় পথচারী

আপডেট: আগস্ট ৮, ২০২০, ২:১১ অপরাহ্ণ

শিবগঞ্জ(চাঁপাইনবাবগঞ্জ)সংবাদদাতা:


দেশের বৃহত্তম শিবগঞ্জের কানসাটের আম বাজার ঘেঁষে মহাসড়কের প্রায় ২ কিলোমিটার জুড়ে সৃষ্টি হয়েছে যানজট। ফলে যাত্রীরা যথাসময়ে গন্তব্যে পৌঁছতে না পারায় নানাবিদ সমস্যার সম্মুখিন হচ্ছে। বিঘ্ন ঘটছে নানা ধরনের জরুরি কাজের। হয়রানির শিকার হচ্ছে সাধারণ যাত্রীরা। প্রশাসন নীরব বলে অনেকে মন্তব্য করলেও প্রশাসনিক তৎপরতাও যানজটের কাছে পাত্তা পাচ্ছে না। অনেকের ধারণা যানজটের কারণে করোনা ভাইরাস ব্যাপক ভাবে ছড়াতে যাচ্ছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, কানসাট আম বাজারের পাশে রাস্তার উপর বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা আম বোঝাই বাইসাইকেল, ভ্যান ও নসিমন-করিমন দাঁড়িয়ে আছে। পথচারীরা অেেপক্ষা করছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা। করোনা ভাইরাসে যখন সারাদেশ আতঙ্কিত তখন কানসাট যানজট এলাকায় স্বাস্থ্য বিধি মানার কোনো বালাই নেই। নেই কোনো সামাজিক দূরত্ব, মুখে নেই মাস্ক, নেই কোনো সচেতনতা। এব্যাপারে কানসাট আম বাজার হাট ইজারাদার কমিটির সদস্য মো. আমিনুল ইসলামের বলেন, কাানসাট আম বাজারে জায়গা কম থাকায় আম বহনকারী যানবাহনগুলি রাস্তার উপর দাঁড়ানোর কারণে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। তবে আমরা যানজট দূর করার জন্য চেষ্টা করছি। কানসাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. বেনাউল ইসলাম জানান, ইতোমধ্যে আমি গ্রাম পুলিশ দিয়েছি। কেউ না মানায় এ অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ যানজট দূর করার নৈতিক ও নিয়ম অনুযায়ী দায়িত্ব হলো হাট ইজারাদারদের। এব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শামসুল আলম শাহ জানান, আম বাজারের জায়গা কম থাকায় রাস্তার উপরে আম বোঝাই ভ্যান-বাইসাইকেল দাঁড়িয়ে থাকছে। ফলে সৃষ্টি হচ্ছে যানজটের। যদি আম বাজারটি রাস্তার পাশে না হয়ে একটি খোলা বড় কোনো জায়গায় হতো তাহলে এ যানজট সৃষ্টি হতো না। তিনি আরো জানান, আমরা সর্বদা সাধারণ মানুষের পাশে থেকে কাজ করছি, আগামীতে তা করবো ইনশাআল্লাহ। কানসাটের যানজট নিরসনের জন্য উদ্যোগ নিয়েছি ইতোমধ্যে। আমরা চেষ্টা করবো কানসাটের মহাসড়কটি যানজট মুক্ত রাখার। তবে, আমাদের সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। অন্যদিকে, শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবিক-আল-রাববী জানান, কানসাট মোড়ে যানজট নিরসনের জন্য ট্রাফিক পুলিশ আছে। কিন্তু ইদের পর থেকে কানসাটের যানজট বেড়ে গেছে। ইদের পর থেকে কোনো ট্রাফিক পুলিশ নাই। সে বিষয়টি দেখে যানজট নিরসনের ব্যবস্থা নিচ্ছে।