কাবু করোনা, ইজরায়েল তাই মাস্কহীন

আপডেট: এপ্রিল ১৯, ২০২১, ৭:৪১ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে একেবারে কাবু ভারত। তখন একদম অন্য ছবি ইজরায়েলে। এই দেশে নিয়ন্ত্রণে এসেছে করোনা পরিস্থিতি। কোভিড টিকা দেওয়া হয়ে গেছে অধিকাংশ দেশবাসীকে। এই দুইয়ের নিরিখে ইজরায়েল জানিয়ে দিয়েছে, বাইরে মাস্ক পরার আর দরকার নেই। রবিবার থেকে খুলে দেওয়া হয়েছে সেখানকার সব স্কুল। রবিবার থেকেই স্কুলে ফিরেছে বাচ্চা থেকে দ্বাদশের পড়ুয়ারা। আপাতত ঠিক হয়েছে, পড়ুয়াদের ছোট দলে ভাগ করে ক্লাস চলবে স্কুলে। সামাজিক দূরত্ব মেনে ক্লাস নেওয়া হবে পঞ্চম থেকে নবম শ্রেণির পড়ুয়াদের। ক্লাসে মাস্ক পরতে হবে ওই পড়ুয়াদের। তবে তারা মাস্ক খুলতে পারবে, খাওয়ার সময়, জিম করার সময় এবং দুটি ক্লাসের মধ্যে বিরতির সময়। নবম থেকে দ্বাদশের পড়ুয়াদের ক্ষেত্রে কোনও কড়াকড়ি নেই। ইজরায়েলের স্বাস্থ্যমন্ত্রক যদিও জানিয়েছে, সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে বাইরে মাস্ক পরা যেতেই পারে। ইনডোরের বড় জমায়েতে মাস্ক আবশ্যিক। এটা ঘটনা করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পর টিকা উৎপাদনে জোর দেয় ইজরায়েল। সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশের পাঁচ কোটি মানুষ টিকা পেয়েছেন। যার ফলে ইজরায়েলের করোনা গ্রাফও নেমেছে। গত শুক্রবার অবধি পাওয়া তথ্য অনুযায়ী ওইদিন মাত্র ২০২ জন করোনা আক্রান্ত হন। ওইদিন পর্যন্ত অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ছিল ২,৫৮৬। এখনও পর্যন্ত ইজরায়েলে করোনায় মারা গেছেন ৬,৩১৫ জন।
যদিও ইজরায়েলের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের ডিরেক্টর জেনারেল চেশি লেভি বলেছেন, ‘মৃত্যুর হার অনেকটাই কমেছে। তবে সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতেই হবে। মাস্ক ভুললে চলবে না।’ তাঁর আক্ষেপ, ইজরায়েলের ২০ শতাংশ শিক্ষক-শিক্ষিকাকে এখনও টিকার আওতায় আনা যায়নি। টিকা দেওয়া হয়নি ১৬ বছরের কম বয়সিদের। অবশ্য মে মাস থেকে ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সিদের টিকা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।
তথ্যসূত্র: আজকাল

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ