কারাবন্দি সময়ে বর্তমান চলার পাথেয় অর্জন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা : লিটন

আপডেট: জুন ১২, ২০২২, ৭:১৬ পূর্বাহ্ণ

বক্তব্য দেন, বাংলাদেশ আ’লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সিটি মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন

নিজস্ব প্রতিবেদক:


বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, কারাবন্দি থাকার সময়ে বর্তমান চলার পাথেয় অর্জন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। কে আপন, কে পর, বিশদভাবে ভাবার সময় পেয়েছিলেন, তার প্রমাণ আজকে আমরা দেখতে পাচ্ছি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে শনিবার (১১ জুন) রাত ৮টায় কুমারপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয়ে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন, যে স্বপ্ন নিয়ে মুক্তিযোদ্ধারা জীবন দিয়ে গেছেন, সেই স্বপ্ন ১৯৯৬ সালে বাস্তবায়ন শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০০৮ সাল থেকে আওয়ামী লীগ সরকারের দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকার ফলাফল আমরা পাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের সর্বক্ষেত্রে উন্নয়ন আজ দৃশ্যমান। উন্নয়নের এক বিশাল প্রমাণ আগামী ২৫ জুন পদ্মাসেতুর উদ্বোধন।

দলীয় নেতাকর্মীদের সজাগ থাকার আহবান জানিয়ে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে নানা রকমের ষড়যন্ত্রের আভাস আমরা পাচ্ছি। বিএনপি ছোট ছোট দল নিয়ে জোট করছে। যতই জোট করেন, কোনদিন সফল হবে না। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অতীতেও রাজপথে ছিল, বর্তমানে আছে, আগামীতেও থাকবে।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল। বক্তব্য দেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ডাবলু সরকার, সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বীর ইকবাল, সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, সহ-সভাপতি ডা. তবিবুর রহমান শেখ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক পিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. আসলাম সরকার। সভা সঞ্চালনা করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর ইশতিয়াক আহমেদ লিমন। সভায় মহানগর, থানা, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।