কালো ছত্রাকের বাড়তি উদ্বেগ সচেতনতামূলক কর্মসূচি নেই!

আপডেট: মে ২৮, ২০২১, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ

করোনাভারইরাস সংক্রমণ মোকাবিলায় উদ্বেগ-অস্থির আবার কখনো অসহায় সময় অতিবাহিত করছে মানব সমাজ। ঠিক এমন নাজুক পরিস্থিতির মধ্যে আপদ হয়ে নতুন আতঙ্কের আবহ তৈরি করেছে। ব্লাক ফ্যাংগাস বা কালো ছত্রাক। যদিও বাংলাদেশে এর বিস্তার তেমন লক্ষনীয় নয়। কালো ছত্রাকে আক্রান্ত কিংবা লক্ষণ নিয়ে একজন মারা গেছেন। আরো দু’একজন কালো ছত্রাকে আক্রান্ত হওয়ার খবর সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।
কালো ছত্রাক সংক্রমণ নিয়ে বাংলাদেশে উদ্বেগ-উৎকণ্টার মাত্রা মোটেও কম নয়Ñ ঝুঁকির যথেষ্ট কারণও আছে। কেননা ভারত থেকে প্রতিদিনই দেশে ফিরছেন বাংলাদেশিরা। তারা চিকিৎসাসহ নানা কাজে ভারতে গিয়ে আটকে পড়ে। আর ভারতে কালো ছত্রাক সংক্রমণ দেশটিকে ভাবিয়ে তুলেছে। দিশেহারা অবস্থাও বলা যেতে পারে। ভারত থেকে বাংলাদেশে যারা ফিরছেন তারা যে কালো ছত্রাক সংক্রমণ নিয়ে দেশে ফিরছেন না – এ কথা কে বলতে পারে! বৈধপথে যারা আসছেন তাদেরকে কোয়ারেন্টিন সম্পন্ন করেই বাড়িতে ফিরতে পারছে। কিন্তু যারা অবৈধ উপায়ে বাংলাদেশে যাতায়াত করছে তাদের ক্ষেত্রে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। শঙ্কাটা এ জায়গাতেই।
কালো ছত্রাকের সংক্রমণকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় বলা হয় মিউকরমাইকোসিস। এ ছত্রাক মাটি, পচে যাওয়া জৈব পদার্থ যেমন- পচা ফলমূল, পাতা বা পশুর বিষ্ঠায় থাকে। এগুলোকে ল্যাবরেটরির কৃত্রিম মিডিয়াতে যখন বৃদ্ধি করা হয়, তখন রং হয় গাঢ় বাদামি বা কালো। এ কারণেই ডাকা হয় ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নামে।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ব্ল্যাক ফাঙ্গাস যে কেবল করোনার কারণেই হবে তা নয়। এটি হাসপাতাল থেকেও ছড়াতে পারে বলে মন্তব্য করেন তারা। বলছেন, এটা সহজে মানুষকে সংক্রমণ করে না, তবে ঝুঁকিপূর্ণ রোগী হলে তখন এটা প্রাণঘাতী হয়। স্টেরয়েডের অধিক ব্যবহার, অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস বা ক্যান্সারের কারণে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গেলে কিংবা অপরিচ্ছন্ন মাস্ক, দূষিত অক্সিজেন মাস্ক সেটাপ এবং ব্যক্তিগত অপরিছন্নতার কারণেও ব্ল্যাক ফাঙ্গাস দেখা দিতে পারে। তাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীদের পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে এবং একান্ত প্রয়োজন না হলে স্টেরয়েড বা অক্সিজেন না দেয়ার পরামর্শ চিকিৎসকদের।
অবশ্য সরকার বলছে কালো ছত্রাক প্রতিরোধে ইতোমধ্যেই গাইড লাইন তৈরি হয়েছে। সে অনুযায়ী মাঠ পর্যায়ে দায়িত্বশীলরা কাজ করবেন। কিন্তু গাইড লাইন অনুযায়ী কার্যক্রম এখনো দৃশ্যমান নয় বলেই জানা যাচ্ছে। কালো ছত্রাক প্রতিরোধে করণীয় বিষয় সম্পর্কে দ্রুত জনসচেতনতা সৃষ্টির উদ্যোগ অধিক গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু সেটা লক্ষনীয় নয়। গুরুত্ব বিবেচনায় সচেতনতা কার্যক্রম দ্রুত মাঠ পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া দরকার।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ