কাশ্মীরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পৃথক এনকাউন্টারে নিহত ৯

আপডেট: জুন ৮, ২০২০, ৮:১৩ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


ভারতীয় আইনশৃঙ্খলবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জম্মু-কাশ্মীরের স্বাধীনতাকামী বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন হিজবুল মুজাহীদিনের তিন কমান্ডারসহ অন্তত ৯ জন নিহত হয়েছেন। ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের সোপিয়ান জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় পৃথক সংঘর্ষের ঘটনায় এই প্রাণহানি ঘটে।
কাশ্মীরের এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেছেন, সোমবার সকালের দিকে দক্ষিণ কাশ্মীরের পিনজোরা এলাকায় অভিযানের সময় নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যদের লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ শুরু করে সন্ত্রাসীরা। সন্ত্রাসীদের উপস্থিতির গোপন খবর পাওয়ার পর সেনাবাহিনী, সিআরপিএফ এবং জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের সমন্বয়ে গঠিত যৌথবাহিনীর সদস্যরা অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় গোলাগুলিতে অন্তত ৪ সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে।
কাশ্মীরের সেনা কর্মকর্তা মেজর জেনারেল এ সেন গুপ্ত বার্তাসংস্থা এএনআইকে বলেন, সোমবার ভোর তিনটার দিকে শুরু হওয়া চার ঘণ্টার এই অভিযানে চার সন্ত্রাসী নিহত হয়েছেন। নিহতদের বিরুদ্ধে গত বছর কাশ্মীরের বেসামরিক নাগরিকদের ওপর বলপ্রয়োগ, অভিবাসী শ্রমিকদের হত্যা, পুলিশ সদস্যদের অপহরণ এবং ট্রাক চালকদের নির্যাতন চালানোর অভিযোগ ছিল।
২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে জম্মু-কাশ্মীরে দুটি স্থানে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এর আগে রোববার বিকেলের দিকে জম্মুর রেবান জেলায় সন্ত্রাসীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর বন্দুকযুদ্ধে আরও অন্তত ৫ জন নিহত হয়। ছয় ঘণ্টার এই সংঘর্ষে নিহতদের মধ্যে হিজবুল মুজাহীদিনের এক আঞ্চলিক কমান্ডার ও একজন বিদেশি নাগরিক ছিলেন। পরে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন ও ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।
গত দুই সপ্তাহে জম্মু-কাশ্মীরের অন্তত ৯টি স্থানে এ ধরনের সংঘর্ষে হিজবুল মুজাহীদিনের ২২ সদস্য নিহত হয়েছেন। জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের মহাপরিদর্শক দিলবাগ সিং বলেছেন, নিহতদের মধ্যে ৬ জনই ছিলেন এই সংগঠনের শীর্ষস্থানীয় কমান্ডার।
সূত্র: এনডিটিভি, জাগোনিউজ