‘কুম্বলে-দ্রাবিড়দের এভাবে অপমান কেন?’

আপডেট: জুলাই ১৭, ২০১৭, ১:০১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ভারতের কোচ যে রবি শাস্ত্রী, সেটা এখন সবাই জানেন। কিন্তু এর চেয়েও যেন বেশি আগ্রহ জন্মাচ্ছিল, সহকারী কোচ নিয়ে সৃষ্টি হওয়া বিতর্ক। সেখানেও জয় হয়েছে শাস্ত্রীর। তাঁর পছন্দের ভরত অরুণকেই বোলিং কোচ নিয়োগ দিতে যাচ্ছে বিসিসিআই। আর রাহুল দ্রাবিড় ও জহির খান থাকতে পারেন শুধু বিদেশ সফরে ব্যাটিং ও বোলিং পরামর্শক হয়ে। বিসিসিআইয়ের সাবেক প্রশাসক ও ইতিহাসবিদ রামাচন্দ্র গুহর মতে, এত নাটক করে বোর্ড দ্রাবিড় ও জহিরকে অপমান করেছে।
কোচ হিসেবে রবি শাস্ত্রীর নাম ঘোষণা করার সময়ই বিসিসিআই জানিয়ে দিয়েছিল, ভারতীয় দলের নতুন বোলিং কোচ হচ্ছেন জহির খান আর বিদেশ সফরে ব্যাটিং উপদেষ্টা হিসেবে থাকবেন রাহুল দ্রাবিড়। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে লেখা হয়েছিল, উপদেষ্টা কমিটি দ্রাবিড়-জহিরকে কোচিং প্যানেলে ঢুকিয়ে শাস্ত্রীর একচ্ছত্র নিয়ন্ত্রণে রাশ টেনেছে। এর আগে শাস্ত্রী যখন টিম ডিরেক্টর ছিলেন, বোলিং কোচ ছিলেন ভরত অরুণ। এ ক্ষেত্রেও মনে হচ্ছিল, শাস্ত্রী ফিরলে সঙ্গে অরুণও ফিরবেন। কিন্তু ক্রিকেট উপদেষ্টা কমিটি সেটা না করে বেছে নেয় জহির খানকে।
কিন্তু বিসিসিআই পরে জানায়, দ্রাবিড় ও জহির দুজনকেই নাকি বিদেশ সফরের জন্য পরামর্শক হিসেবে রাখার সুপারিশ করেছে উপদেষ্টা কমিটি, অন্য কিছু নয়। তবে পূর্ণকালীন বোলিং কোচ হিসেবে শাস্ত্রীর পছন্দমতো ভরত অরুণকে নিয়োগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়ে গেছে। কালই ভারতের একটি ক্রিকেট ওয়েবসাইটকে এটি নিশ্চিত করে দিয়েছেন বিসিসিআইয়ের প্রশাসক কমিটির এক জ্যেষ্ঠ সদস্য। এই পুরো বিতর্ক সাবেক দুই ক্রিকেটারের জন্য অপমানজনক বলে মনে করছেন গুহ। কদিন আগে বোর্ডের প্রশাসক কমিটি থেকে পদত্যাগ করা এই ক্রিকেটলেখক পৃথক দুই টুইট বার্তায় বলেছেন, ‘অনিল কুম্বলের সঙ্গে যে নিন্দনীয় আচরণ করা হয়েছিল, সেটাই করা হলো রাহুল দ্রাবিড় ও জহির খানের সঙ্গে। কুম্বলে, দ্রাবিড় ও জহির-তিনজনই ভারতের হয়ে মাঠে সেরাটা দিয়ে গেছেন। এই অপমান ওদের প্রাপ্য নয়।’ জি নিউজ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ