কুয়েতে মৃত বাংলাদেশি শ্রমিক আয়ুবের লাশ ২৩ দিন পর স্বজনের কাছে

আপডেট: জানুয়ারি ২০, ২০১৭, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


কুয়েতে মৃত বাংলাদেশি শ্রমিক আয়ুব আলীর লাশ ২৩ দিন পর স্বজনের কাছে এসেছে। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সহযোগিতায় গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১টার দিকে ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে আয়ুব আলীর লাশ তার বড় ভাই আবদুস সালাম ও ছোট ভাই নায়েব আলীর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
জানা যায়, আয়ুব আলী গত ২৭ ডিসেম্বর কুয়েত সময় রাত সাড়ে ১২টার দিকে মারা যান। আয়ুব আলী থাকতেন কুয়েতের শিবদি থানার হিজিল ঝাকর এলাকায়। লাশ নিয়ে অনিশ্চিতার মধ্যে ছিল পরিবার। কিন্তু বিষয়টি পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দৃষ্টিগোচর হলে সরকারিভাবে লাশ আনার ব্যবস্থা করেন তিনি। অবশেষে ২৩ দিন পর পরিবারের কাছে লাশ এসে পৌঁছায়। আয়ুব আলী রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভার কুশাবাড়িয়া মহল্লার শুকুর আলীর ছেলে।
আয়ুব আলীর ছোট ভাই নায়েব আলী বলেন, আমার ভাই শ্রমিকের কাজ নিয়ে প্রায় ১০ বছর আগে কুয়েতে যান। সেখানে কাজ করে বৃদ্ধ মা, বাবা, স্ত্রীর কাছে মাসে মাসে টাকা পাঠাতেন। কিন্তু চিরকালের জন্য টাকা পাঠানো বন্ধ হয়ে গেল। আমরা গরীব হওয়ায় লাশ দেশে আনা নিয়ে অনিশ্চিয়তার মধ্যে ছিলাম। পরে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় লাশ পেলাম। আয়ুব আলীর পরিবারে আছেন বৃদ্ধ মা ফিরোজা বেগম, স্ত্রী শুভা বেগম, সপ্তম শ্রেণিতে পড়–য়া একমাত্র মেয়ে তমা, ভাই আবদুস সালাম, নায়েব আলীসহ আতœীয় স্বজনরা।
পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সাংসদ শাহরিয়ার আলম বলেন, সরকারি খরচে আয়ুব আলীর লাশ দেশে আনা হয়েছে। ইতোমধ্যে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ