কেউ চায় শিরোপা, কেউ অভিজ্ঞতা

আপডেট: January 15, 2020, 1:03 am

সোনার দেশ ডেস্ক


সাংবাদিকদের মুখোমুখি মরিশাস কোচ ফ্রান্সিসকো ফিলহো-সংগৃহীত

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবলে ফিলিস্তিনের শিরোপা ধরে রাখার লক্ষ্য। স্বাগতিক বাংলাদেশ চায় শিরোপাখরা ঘোচাতে। বাকি চার দলের কারও চোখ শিরোপায়, কেউ বা চায় অভিজ্ঞতা অর্জন।
‘এ’ গ্রুপে বাংলাদেশের সঙ্গী ফিলিস্তিন ও শ্রীলঙ্কা। ‘বি’ গ্রুপের তিনটি দলই আফ্রিকান—বুরুন্ডি, সেশেলস ও মরিশাস।
ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে মরিশাসের অবস্থান ১৭২। অনূর্ধ্ব-১৭ দলে খেলা ছয় জনকে নিয়ে ঢাকায় এসেছে ভারত মহাসাগরের দ্বীপদেশটি। ঘরোয়া ফুটবলের অবকাঠামো তেমন ভালো নয়, পেশাদার লিগ হয় না। ফুটবলের চেয়ে চাকরিই বেশি পছন্দ তরুণদের।
মরিশাসের কোচ ফ্রান্সিসকে ফিলহো বলেছেন, ‘তারুণ্য নির্ভর দল নিয়ে আমরা এসেছি। অভিজ্ঞতা অর্জন আমাদের লক্ষ্য। তবে সুযোগ পেলে জিততে চাই। আমাদের গ্রুপটি সহজ নয়, বুরুন্ডির মতো দল আছে।’
১১৫টি দ্বীপ নিয়ে গড়ে উঠলেও সেশেলসের জনসংখ্যা মাত্র এক লাখ। ফুটবল লিগ হয় তিনটি। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের প্লে অফ আর আফ্রিকান নেশন্স কাপের বাছাই পর্বে তারা ভালো করতে পারেনি। বিশ্বকাপে রুয়ান্ডা আর নেশন্স কাপে দক্ষিণ সুদানের কাছে হেরেছে। তবু কোচ ডন আনাকুরা আশাবাদী, ‘আমরা এই প্রতিযোগিতায় ভালো করতে এসেছি। তারুণ্য নির্ভর দল হলেও আমাদের লক্ষ্য শিরোপা।’
ছয় দলের মধ্যে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে সবচেয়ে পিছিয়ে শ্রীলঙ্কা (২০৫)। কোচ পাকির আলী ঢাকার ফুটবলে পরিচিত মুখ। আশির দশকে দীর্ঘদিন খেলেছেন আবাহনীতে, অবসরের পর কোচ হিসেবেও এসেছেন এদেশে।
বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে শ্রীলঙ্কা ভালো করতে পারেনি, পাঁচটি ম্যাচই হেরেছে। মঙ্গলবার ঢাকায় এসে অসুস্থবোধ করায় পাকির আলী সংবাদ সম্মেলনে আসেননি। শ্রীলঙ্কার ম্যানেজার কর্নেল পাথনানাথান বলেছেন, ‘আমরা ভালো ফল করতে এসেছি। গ্রুপে বাংলাদেশ ও ফিলিস্তিন থাকলেও আমাদের লক্ষ্য সেমিফাইনাল। এরপর ফাইনালের কথা ভাববো।’
ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ১৫১ বুরুন্ডি ঢাকায় এসেছে দুপুরে। তাই সংবাদ সম্মেলনে আসতে পারেনি। গত বছর ১৪টি আন্তর্জাতিক ম্যাচের ৯টিতেই হেরেছে, জিতেছে মাত্র একটি। বুরুন্ডির সেরা লিগ হয় ১৬ দলকে নিয়ে।