কেবিনেট নির্বাচন শিক্ষা কার্যক্রমকে ত্বরান্বিত করবে : বিভাগীয় কমিশনার

আপডেট: মার্চ ১৬, ২০১৭, ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



মাধ্যমিক ও দাখিল মাদরাসায় স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন-২০১৭ উপলক্ষে সেমিনারে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর রহমান বলেছেন, মাধ্যমিক পর্যায়ে কেবিনেট নির্বাচনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা এগিয়ে যাবে। মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষাকর্যক্রমকে ত্বরান্বিত করবে। পড়াশুনার পাশাপাশি কেবিনেট নির্বাচন শিক্ষার্থীদের আনুষাঙ্গিক জ্ঞানের ক্ষেত্র বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে। কিশোর বয়স থেকে চেতনা ও মানসিকতা জাগ্রত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।
গতকাল বুধবার সকাল ৯টায় রাজশাহী কলেজ অডিটোরিয়ামে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর রাজশাহী অঞ্চলে উদ্যোগে আয়োজিত সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, মাধ্যমিক পর্যায়ে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচনের ফলে স্কুলের শিক্ষার্থীরা পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ও বাল্যবিবাহ রোধে ভূমিকা রাখবে। মেধাবী শিক্ষার্থীরা উন্নত দেশ, প্রজন্ম, মানুষ ও মানবতার জন্য কাজে সহযোগিতা করতে পারবে। এতে ছাত্রদের অকালে ঝরেপড়া রোধ করতে কেবিনেটের সদস্যরা সহযোগিতা করতে পারবে। বক্তব্যের শেষে বিভাগীয় কমিশনার সেমিনারের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।
মাধ্যমিক ও উচ্চ রাজশাহী অঞ্চলের পরিচালক অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান সরকারের সভাপতিত্বে এবং সহকারি পরিচালক (কলেজ) ড. মোয়াজ্জেম হোসেনের পরিচালনায় সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মোহা. হবিবুর রহমান, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের সচিব ড. আনারুল হক প্রাং, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা রাজশাহী অঞ্চলের উপপরিচালক (কলেজ) ড. কামাল হোসেন, ঢাকা ব্যানবেইস স্পেশালিস্ট (ডকুমেন্টস) কাজী ইলিয়াস উদ্দিন আহম্মেদ। স্বাগত বক্তব্য দেন, জেলা শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম।
সভাপতির বক্তব্যে আবদুল মান্নান সরকার বলেন, সামাজিক কাঠামোর পরিবর্তন আনতে হবে। মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হতে হলে দুর্নীতি রোধ করতে হবে। দেশের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ বৃদ্ধি করতে শিক্ষার্থীদের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন করা প্রয়োজন। স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন শিক্ষা কার্যক্রমে আরো বেশি অংশগ্রহণ করার প্রক্রিয়া।
অনুষ্ঠানে রাজশাহী বিভাগের ৮ জন জেলা শিক্ষা অফিসার, ৬৯ জন উপজেলা/থানা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, ৪৭ জন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, ২৪ জন দাখিল মাদরাসার সুপার ও ৭১ জন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও মনোনিত সদস্য। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত ও গীতা পাঠ করা হয়। এরপর অংশগ্রহণকারীদের পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে কেবিনেট নির্বাচন সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ