কোহলিদের বিপক্ষে স্মিথদের অগ্নি পরীক্ষা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আইপিএলের কারণে ভারত একরকম দ্বিতীয় বাড়ি স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলদের জন্য। সীমিত ওভারের ক্রিকেট বলে ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ভালো একটা লড়াই আশা করেছিল সবাই। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া যে পুরোপুরি কুপোকাত কোহলিদের ডেরায় এসে! প্রথম দুই ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতাই গড়তে পারে নি কোন। পাঁচ ম্যাচের সিরিজে সফরকারীদের এখন চোখ রাঙ্গাচ্ছে সিরিজ হার। আর সেই শঙ্কা নিয়েই ০-২ এ পিছিয়ে থেকে আজ রোববার ইনদোরে তৃতীয় ওয়ানডে খেলতে নামবে অস্ট্রেলিয়া ও ভারত। বাংলাদেশ সময় ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর ২টায়।
চেন্নাইয়ে প্রথম ওয়ানডেতে বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ২৬ রানে জেতে ভারত। কলকাতায় ২৫২ রান করেও ভারতের জয় ৫০ রানের। গোটা টিম ইন্ডিয়ায় এখন পিকনিকের আমেজ। স্টিভ স্মিথদের অহসায় আত্মমূর্তিই যেন তাদের আনন্দের নাম। ঠিক সেই সময় কি ঘুরে দাঁড়াতে পারবে অস্ট্রেলিয়া? ব্যাটে বলে যে একেবারেই ব্যর্থ তারা। চেন্নাইয়ের কথাই ধরুন। ম্যাচটিতে ৮জন ব্যাটসম্যানই পারেননি নিজেদের স্কোর ডাবল ডিজিটে নিয়ে যেতে। কলকাতার ইডেনেও একই দৃষ্যের মঞ্চায়ন। চারজন ব্যাটসম্যান বাদে কেউই দুই অঙ্গের স্কোর করতে পারলেন না। সে তুলনায় বোলিংটা নিয়ে হয়তো খুব বেশি ভাবনা নেই অজিদের। নাথান কাল্টার নিল তো দুই ম্যাচেই নিয়েছেন ৩ উইকেট করে।
আর ভারতের চিত্রটা দেখুন। এই সিরিজ দিয়ে পরোক্ষ বা প্রত্যক্ষ ভাবে ২০১৯ বিশ্বকাপে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে ১৯৮৭ ও ২০১১ এর চ্যাম্পিয়নরা। হ্যা, অজিদের বিপক্ষেই প্রস্তুতিটা শুরু। টানা চার বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের অহং তো এখানেই মাটিতে লুটেছে অনেকটা। চার ও পাঁচ নম্বরে মনিশ পান্ডে ও কেদার যাদবকে পরীক্ষা করে দেখছে তারা। প্রথম দুই ম্যাচে যিনি ব্যর্থ হয়েছেন পুরোপুরি। বরিচন্দ্রন অশ্বিন ও বরীন্দ্র জাদেযাকে বিশ্রামে পাঠিয়ে কুলদ্বীপ যাদব, যুজবেন্দ্র চাহালকে নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে। কুলদ্বীপ এমন দারুণ বোলিং করে চলেছেন, আসছে বিশ্বকাপে অশ্বিন ও কুলদ্বীপের মধ্যে কাকে খেলানোর পরিকল্পনা ভারতের সে নিয়েও অনেকের কৌতুহল।
ভারতের বর্তমান স্কোয়াডটা প্রথম তিন ওয়ানডের। তাই প্রথম দুই ম্যাচে আলো কাড়তে না পারারা এ ম্যাচে ভালো করতে মুখিয়ে থাকবে। কে জানে কি অপেক্ষা করছে অস্টেলিয়ার জন্য। নাকি দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ার পর স্মিথ-ওয়ার্নাররা আহত আঘের মতো ফিরে আসার গল্প লিখবেন। ভারতে যা ঘটতে তাতে অবশ্য কাজটা কঠিনই হবে স্মিথদের জন্য।