ক্রিকেটে বড়দের ব্যর্থতার দিনে ছোটদের সাফল্য

আপডেট: ডিসেম্বর ১৮, ২০২৩, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ী দলকে অভিনন্দন

রোববার (১৭ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দুইটি খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। একটি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ^কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ ও আরব আমিরাত দল। আর অন্যটিতে আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড দল।

যেখানে ছেলেদের ক্রিকেটে বড়রা এখন পর্যন্ত যা করতে পারেনি সেটাই করে দেখালো ছোটরা। ২০২০ সালে আকবর আলীর নেতৃত্বে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের পর এবার এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বও অর্জন করেছে বয়সভিত্তিক ক্রিকেট দল। রোববার ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিংয়ে আরব আমিরাতকে স্রেফ উড়িয়ে দিয়েছে যুবারা। ২৮৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে সংযুক্ত আরব আমিরাত অলআউট হয়েছে ৮৭ রানে। ১৯৫ রানের বড় জয়ে বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো মাথায় দিয়েছে যুব এশিয়া কাপের মুকুট।

তাতে যুব বিশ্বকাপের পর এশিয়া কাপ জিতে বড় টুর্নামেন্টে সফল হওয়ার পথটা এই ছোটরাই দেখালো। দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ নিয়মিত জিতলেও বাংলাদেশ জাতীয় দল বড় টুর্নামেন্টে সাফল্যহীন। সাকিব-মুশফিকরা তিনবার এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলেও সাফল্য পাননি। আর বিশ্বকাপের ফাইনালতো দূরের পথ, এখন অব্দি কোয়ার্টার ফাইনালের গণ্ডিই বড়রা পেরুতে পারেনি।

বড়দের ব্যর্থতার ভিড়ে এখন আশা দেখাচ্ছে ছোটদের বয়সভিত্তিক ক্রিকেট। এই ছোটরাই সাকিব-মুশফিকদের পথ দেখাচ্ছেন! প্রথমে গ্রুপ পর্বে জাপান, আরব আমিরাত, শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিয়ে বাংলাদেশ যুব দল সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে। যে ভারতের সামনে সাকিব-তামিমরা দুইবার এশিয়া কাপের শিরোপা খুঁইয়েছেন, সেই দেশটির যুব দলকে হারিয়েই বাংলাদেশ শিরোপা জয়ের পথটা সুগম করেছে। তার পর শিরোপা মঞ্চে তো বাংলাদেশের সামনে স্রেফ উড়ে গেছে স্বাগতিকরা। ফাইনালে বাংলাদেশ এই অসাধ্য সাধন করেছে মাত্র দ্বিতীয় টেষ্টায়। এর আগে ২০১৯ সালে প্রথমবারের মতো এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলে ভারতের কাছে হেরে শিরোপা বঞ্চিত হয়েছিলো আকবর-জয়-শামীমরা।

রোববার বৃষ্টির কারণে নির্ধারণ করে দেওয়া ৩০ ওভার শেষ হলো ৯ উইকেটে বাংলাদেশের ২০০ রানের মাথায়। ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের কাছে প্রথম ওয়ানডেতে হেরে গেছে ৪৪ রানের ব্যবধানে।

বড়দের দেখে ছোটরা অনুপ্রাণিত হয়। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা সেটা দেখাতে ব্যর্থ হয়েছে। উল্টো এশিয়া কাপের ফাইনালে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়ে বাংলাদেশ যুবরা বড়দের দেখিয়ে দিলো। অবশ্য আগামী দিনে এই দলের অনেক খেলোয়াড়রা বাংলাদেশ জাতীয় দলে প্রতিনিধিত্ব করবেন। অভিনন্দন যুবদের। তারা যেন একদিন এশিয়া কাপের মতো বিশ^কাপটা দেশের মাটিতে বয়ে নিয়ে আসেন।- এটা বিজয়ের মাসে ক্রিকেটপ্রেমীদের প্রত্যাশা।