ক্ষমতায় এলে ছাত্রীদের স্কুটি ও স্মার্টফোন, উত্তরপ্রদেশ জয়ের লক্ষ্যে ঢালাও প্রতিশ্রুতি প্রিয়াঙ্কার

আপডেট: অক্টোবর ২২, ২০২১, ৫:২৯ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দু’দিন আগেই উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকায় ৪০ শতাংশ নারী সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। এবার নারী ভোট টানতে উচ্চমাধ্যমিক বা দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রীদের স্মার্টফোন এবং স্নাতক তরুণীদের ইলেকট্রনিক স্কুটি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন তিনি।



বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা একটি টুইটে হিন্দিতে লেখেন, ‘গতকাল আমি কিছু ছাত্রীর সঙ্গে দেখা করেছি। তারা জানিয়েছে, পড়াশোনা আর নিরাপত্তার প্রয়োজনে তাদের স্মার্টফোন দরকার। আমি খুশি যে আজ ইস্তাহার কমিটির সম্মতিতে উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেস সিদ্ধান্ত নিয়েছে, রাজ্যে ক্ষমতায় এলে ইন্টার পাস করা মেয়েদের স্মার্টফোন এবং স্নাতক তরুণীদের ইলেকট্রনিক স্কুটি দেওয়া হবে।’

উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা ভোটের দামামা বেজে গিয়েছে। একদিকে ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া বিজেপি। অন্যদিকে, যোগী সরকারের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ এনে ক্ষমতায় ফিরতে তৎপর কংগ্রেস। উত্তরপ্রদেশ দখলে এবার নারীশক্তির উপরে ভরসা রাখছে হাত শিবির। আসন্ন নির্বাচনে ৪০ শতাংশ আসনে নারীদের প্রার্থী করতে চান সোনিয়া-রাহুলরা। সাম্প্রতিক কয়েক বছরে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে নারী নির্যাতনের একাধিক ঘটনা সামনে এসেছে। সেই ঘটনার উল্লেখ করে উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকারকে কাঠগড়ায় তুলেছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। উত্তরপ্রদেশের নারীরা এবার রাজ্যে বদল চাইছেন বলে সওয়াল করেন কংগ্রেস নেত্রী। সেই সূত্র ধরেই উঁচু ক্লাসের ছাত্রীদের স্মার্টফোন ও স্কুটি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি।

বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে তৃণমূল কংগ্রেস সরকার গঠনের পর নারী উন্নয়নে অনেকগুলি পদক্ষেপ হয়েছে। এর মধ্যে কন্যাশ্রী অন্যতম। তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’ প্রকল্পের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেছে তৃণমূল। নারী সদস্যদের নামে পরিবারের স্বাস্থ্যসাথী কার্ড হয়েছে। এছাড়া স্কুল বন্ধ থাকার সময় অনলাইনে পড়াশোনার সুবিধার জন্য দ্বাদশের ছাত্রছাত্রীদের স্মার্টফোন বা ট্যাব কিনতে ১০ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। মমতার সামাজিক কল্যাণ প্রকল্পগুলিকে ‘অনুকরণ’ করেই কংগ্রেস উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামতে চাইছে বলেই রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি।

এদিন, উত্তরপ্রদেশের সাংগঠনিক দায়িত্বে থাকা প্রিয়াঙ্কা তাঁর টুইটে একটি ভিডিও পোস্ট করেন৷ সেখানে দেখা যাচ্ছে, উত্তরপ্রদেশের স্কুল ও কলেজের বেশ কিছু ছাত্রী এক সাংবাদিকের সঙ্গে কথা বলছে। তারা প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে ছবি তোলার কথাও জানাচ্ছে ওই সাংবাদিককে। তাদের মধ্যে একজন ছাত্রী জানায়, প্রিয়াঙ্কা গান্ধী নিজে তাঁদের সঙ্গে সেলফি তুলতে চান। ছাত্রীদের ওই প্রিয়াঙ্কা জিজ্ঞাসা করেন তাদের কারও কাছে ফোন আছে কি না। ছাত্রীটি বলে, “আমরা জানালাম যে আমাদের কাছে ফোন নেই আর কলেজেও ফোন ব্যবহারের অনুমতি নেই। তখন তিনি আমাদের জিজ্ঞাসা করেন, যদি মেয়েদের ফোন দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়। আর আমরা বললাম যে, আমাদের নিরাপত্তার জন্যও ফোন দরকার।” এক ছাত্রীকে বলতে শোনা গিয়েছে, প্রিয়াঙ্কা তাদের ‘লড়কি হুঁ, লড় সকতি হুঁ’, কংগ্রেসের স্লোগান নিয়েও জানিয়েছেন।

তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ