ক্ষমা চাইলেন বাইডেন

আপডেট: নভেম্বর ২, ২০২১, ১:১৯ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক


২০২১ সালে ক্ষমতায় এসেই প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফেরার ঘোষণা দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তার পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৭ সালে এ চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে সরিয়ে নেন। সোমবার স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে ঐতিহাসিক জলবায়ু সম্মেলনে দেওয়া ভাষণে বিগত ট্রাম্প প্রশাসনের ওই সিদ্ধান্তের জন্য বিশ্বনেতাদের কাছে ক্ষমা চান বাইডেন। এক প্রতিবেদেনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম সিএনএন।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, বিগত প্রশাসনের ওই পদক্ষেপের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমি খুবই লজ্জিত।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওই সিদ্ধান্ত যুক্তরাষ্ট্রকে তার জলবায়ু লক্ষ্যমাত্রা অর্জন থেকে পিছিয়ে দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন বাইডেন।
তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি আমার ক্ষমা চাওয়া উচিত নয়, তবে আমি এই সত্যের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী যে সাবেক মার্কিন প্রশাসন প্যারিস চুক্তি থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল।’
জো বাইডেন বলেন, ‘গত এপ্রিলে জলবায়ু বিষয়ক লিডারস সামিটে আমি যে উচ্চাভিলাষী টার্গেট নির্ধারণ করেছিলাম, যুক্তরাষ্ট্র তা পূরণে সক্ষম হবে। এতে করে ২০৩০ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের কার্বন নির্গমন ২০০৫ সালের পর্যায়ের চেয়ে ৫০ থেকে ৫২ শতাংশ কমে যাবে।’

জলবায়ু বিপর্যয় এড়ানোর আহ্বানের মধ্য দিয়ে রবিবার গ্লাসগোতে শুরু হওয়া এ সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন প্রায় ২০০টি দেশের প্রতিনিধিরা। সেখানে তারা ধরিত্রীর সুরক্ষায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের করণীয় নিয়ে আলোচনা করবেন। কথা বলবেন ২০৩০ সালের মধ্যে কীভাবে কার্বন নিঃসরণের মাত্রা কমিয়ে আনা যায় সেটি নিয়ে। সম্মেলনে মূলত জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহার কমিয়ে বৈশ্বিক উষ্ণায়ন কমিয়ে আনার ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে।

বিশ্বকে সুরক্ষায় এই সম্মেলনের সাফল্যের ওপর অনেকটাই নির্ভর করছে বিপর্যয় থেকে পৃথিবীকে বাঁচানোর প্রচেষ্টা কতটা কাজ করবে। সম্মেলনকে ঘিরে জলবায়ু পরিবর্তনের বিপর্যয় থেকে ধরিত্রীকে রক্ষায় বিশ্বনেতাদের কাছ থেকে জোরালো পদক্ষেপ চাইছেন জলবায়ু কর্মীরা। অন্যদিকে উন্নত, উন্নয়নশীল ও স্বল্পোন্নত দেশগুলোরও স্বতন্ত্র এজেন্ডা রয়েছে।
তথ্যসূত্র: সিএনএন, ভিওএ, বাংলাট্রিবিউন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ