খালি ক্যারেটে খাজনা আদায়ের প্রতিবাদে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ মহাসড়ক অবরোধ

আপডেট: জুন ২৩, ২০২২, ১০:৩৭ অপরাহ্ণ

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি:


খালি ক্যারেটে খাজনা আদায়ের প্রতিবাদে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ মহাসড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে আমচাষী ও আড়তদাররা। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) কানসাট আম বাজারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

খালি ক্যারেটে হাটের খাজনা আদায়কে কেন্দ্র করে এক ব্যক্তিকে মারধরের ঘটনা ঘটলে ক্ষিপ্ত হয়ে মহাসড়ক অবরোধ করেও রাখে আম চাষি ও আড়তদাররা। এতে দুই পাশে আটকে পড়ে ছোট বড়সহ বিভিন্ন ধরণের যানবাহন। খবর পেয়ে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

একই সঙ্গে অবরোধ কর্মসূচি তুলে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। আম চাষিরা বলছেন, আড়তদারতের কাছে জিম্মি হয়ে গেছেন তারা। খালি ক্যারেট নিয়ে যাওয়া আম আড়তদার শিপন আলী জানান, কানসাট থেকে একটি ভটভটিযোগে কয়েক’শ খালি ক্যারেট নিয়ে নওগাঁর সাপাহারে যাচ্ছিলেন। কানসাট গোপালনগর এলাকায় পৌঁছালে কানসাট হাট ও দৈনিক বাজারের একজন সদস্য ৩ হাজার ৬’শ টাকা খাজনা দাবি করেন।

খাজনা দিতে অপরগতা জানালে ভটভটি চালককে এক ঘণ্টা আটক করে রাখে তারা। পরে আমচাষি আড়তদারসহ মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। এর আগে গত ৫ দিন আগে আরও এক ভ্যানচালকের মাথা ফাটিয়ে দিয়েছিলেন কানসাট হাট ও দৈনিক বাজারের একজন সদস্য। এদিকে এনামুলসহ বেশ কয়েকজন আম চাষি অভিযোগ করেছেন কানসাট বাজারে মণে প্রায় ১২ কেজি বেশি নিচ্ছেন আড়তদাররা। এতে তারা জিম্মি হয়ে পড়েছেন।

অবিলম্বে দ্রুত সমস্যা সমাধানের দাবি জানিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে কানসাট হাট ইজারাদারের সাধারণ সম্পাদক বাবু বলেন, কানসাট আম বাজার থেকে কেউ খালি ক্যারেট নিয়ে গেলে অফিস থেকে গেট পাস নিতে হয়। কিন্তু ওই ভটভটির মালিক গেট পাস নেননি। ফলে খাজনার জন্য তাকে বলা হয়েছে মাত্র। আমরা টাকা দিয়ে হাট কিনেছি।

খাজনা তো উঠাবো। শিবগঞ্জ থানার ওসি চৌধুরী জোবায়ের আহাম্মদ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং অবরোধ কর্মসূচি তুলে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল হায়াতের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মিটিংয়ে আছি, পরে কথা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ