খোলা আকাশের নিচে ভূমিহীন সালেহা!

আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০১৬, ১২:০২ পূর্বাহ্ণ


বাঘা প্রতিনিধি  
রাজশাহীর বাঘা-ইশ^রর্দী সড়কের লালপুর-বাঘা উপজেলার সীমান্ত লালপুর উপজেলার বেরিলাবাড়ি গ্রামে একটি বট গাছের নিচে অবস্থান নিয়েছেন সালেহা বেগম। বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদের দুই দিন পর থেকে খোলা আকাশের নিচে পাঁচ মাসের শিশু সন্তানকে নিয়ে দিন পারছেন সালেহা।
গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ২৬ বছর আগে উপজেলার বড়ছয়ঘটি গ্রামের খাঁপাড়া থেকে বাড়ি ভেঙে নিয়ে বাঘা উপজেলার সীমান্ত লালপুর উপজেলার বেরিলাবাড়ি গ্রামে ঘর তুলে বসবাস শুরু করেন সালেহা বেগম। কিন্তু হঠাৎ করে গত সোমবার উচ্ছেদ করায় সালেহা বেগমের এই কষ্টের দিন যাপন করতে হচ্ছে। এই ব্যাপারে সালেহা বেগমের ভাষ্য, আমার ছেলে কাবিল হোসেনের ৫ মাসের সন্তান স্বাধীনকে নিয়ে খোলা আকাশে নিচে বসবাস করছি। দেখার কেউ নেই। আমাদের যাওয়ার জায়গা নেই। এখন কি করব ভেবে পাচ্ছি না।
সালেহা জানান, উপজেলার বাদলিবাড়ি গ্রামের মকবুল হোসেন, আনছার সরকার, সাবেক চেয়ারম্যান মক্কেল আলী, জামাল মেম্বারসহ স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় ভূমিহীন হিসেবে আমাদের বাড়ি তৈরি করে দেয়। কিন্তু জমির মালিক সাধু প্রামানিক হঠাৎ করে আমাদের কিছুই না জানিয়ে উচ্ছেদ করে দিয়েছে।
এ ব্যাপারে জমির মালিক সাধু প্রামানকি বলেন, ১৩ বছর আগে আদালতে তাদের উচ্ছেদের মামলা করি। এই মামলার রায় আমার পক্ষে হয়েছে। ফলে তাদের উচ্ছেদ করে দিয়েছি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ